Advertisement
১৮ এপ্রিল ২০২৪
Santosh Dutta

Eken Babu: আমার চেহারায় আমার হাত নেই, সন্তোষ দত্ত হওয়ার স্পর্ধাও নেই: অনির্বাণ

‘একেনবাবু’-র বৌ নেই! বড় পর্দা নিশ্চয়ই সেই অভাব পূরণ করবে?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৯ নভেম্বর ২০২১ ১৩:৫৫
Share: Save:

হিসেব পাল্টে দিলেন একেনবাবু! সাধারণত কোনও ছবি অত্যন্ত জনপ্রিয় হলে তার থেকে সিরিজ হয়। শুক্রবার এসভিএফ প্রযোজনা সংস্থার ঘোষণা, সিরিজে বাজিমাত করে এ বার বড় পর্দা জয় করতে আসছেন ‘দ্য একেন’। প্রথম সিরিজ থেকে ‘একেনবাবু’ সফল। তাই কি হইচই ওয়েব প্ল্যাটফর্ম থেকে সটান প্রেক্ষাগৃহে দর্শক টানতে আসছেন ছক ভাঙা বাঙালি গোয়েন্দা?

আনন্দবাজার অনলাইনের এই কৌতূহলের জবাব দিলেন স্বয়ং ‘একেনবাবু’ ওরফে অনির্বাণ চক্রবর্তী। তিনিও স্বীকার করে নিয়েছেন, গোটা বিশ্বেই সিরিজ থেকে কোনও চরিত্র বা গল্পের বড় পর্দায় মুক্তি বিরল। হাতেগোনা এমন ঘটনা ঘটেছে। সেই দলে তিনিও সামিল! এটা ভেবেই আহ্লাদিত অনির্বাণ। নেপথ্য কারণ হিসেবে ভাল গল্প, টানটান চিত্রনাট্য, মুচমুচে সংলাপ, কৌতুক রসের ঝকঝকে উপস্থাপনাকেই তিনি কৃতিত্ব দিয়েছেন। বাকিটা দর্শকের দৌলতে, এমনই দাবি অনির্বাণের। বলেছেন, ‘‘দর্শক ভাল না বাসলে কিছুই হত না। সবার মনের মতো হয়ে উঠতে পেরেছি বলেই এই ঘটনা ঘটতে চলেছে।’’

খবর, জানুয়ারির শেষে দার্জিলিংয়ে শুরু হবে ছবির শ্যুট। গল্প এক্ষুণি জানাতে পারবেন না ‘একেনবাবু’। তবে শৈল শহরকে ঘিরেই দানা বাঁধবে যাবতীয় কাণ্ড-কারখানা। পরিচালনায় জয়দীপ মুখোপাধ্যায়। তিনি জনপ্রিয় সিরিজের চতুর্থ সিজনের পরিচালক। কাহিনিকার সুজন দাশগুপ্ত। চিত্রনাট্য লিখেছেন পদ্মনাভ দাশগুপ্ত। ছবির গানের দায়িত্বে জয় সরকার। গানের কথা লিখছেন চন্দ্রিল ভট্টাচার্য।

বাঙালির দার্জিলিং ঘিরে আলাদা অনুভূতি। ফেলুদার সহকারী লালমোহনবাবুরও বড্ড পছন্দের জায়গা এই দার্জিলিং। তাঁর মতোই কি বলতে ইচ্ছে করছে, ‘দার্জিলিং জমজমাট’ বা ‘গ্যাংটকে গণ্ডগোল’? এ বার হাসির ছোঁয়া অনির্বাণের গলায়, ‘একেনবাবু’ এই ধরনের কথা বলেন না। তিনি হয় ভুল প্রবাদ আওড়াবেন নয়তো আহ্লাদে বেশি খেয়ে ফেলবেন!


সিরিজে সব আছে। শুধু ‘একেনবাবু’-র বৌ নেই! বড় পর্দা নিশ্চয়ই সেই অভাব পূরণ করবে?

এ বারেও উত্তর এড়িয়ে গেলেন অভিনেতা। ফলে, জানা যায়নি ‘একেনবাবু’র বৌ সহ আর কারা কারা অভিনয়ে থাকবেন। ছবির ফার্স্ট লুক বলছে, সন্তোষ দত্তের যেন পুনর্জন্ম হয়েছে। বাঙালির কাছে সচেতন ভাবেই কি প্রয়াত কালজয়ী অভিনেতার ছায়া হয়ে জনপ্রিয় হতে চান অনির্বাণ? কণ্ঠস্বর থেকে হাসি উধাও। অভিনেতার যুক্তি, ‘‘আমার চেহারায় আমার হাত নেই। সন্তোষ দত্ত হওয়ার স্পর্ধাও নেই। অন্য দিকে, ‘একেনবাবু’ প্রথম দিন থেকেই এই বিশেষ চেহারায় উপস্থিত হয়েছে। ফলে, সেখানেও কিছু করার নেই।’’ তাঁর দাবি, ‘জটায়ু’র চরিত্রে অভিনয় না করলে হয়তো এই ভাবনা তিনিও ভাবতেন। যেহেতু দুটো চরিত্রেই অভিনয় করেছেন তাই জানেন, ‘লালমোহনবাবু’ আর ‘একেনবাবু’ এক নন। এক জন তুখোড় গোয়েন্দা। অন্য জন নিপাট ভালমানুষ, বন্ধুবৎসল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Santosh Dutta hoichoi
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE