নব্বইয়ের দশকে বলিউডের নামকরা ভিলেন ছিলেন। অমিতাভ বচ্চন, গোবিন্দ, সঞ্জয় দত্তের মতো হেভিওয়েট তারকাদের সঙ্গে কাজ করেছেন। এ হেন মহেশ আনন্দের পচাগলা দেহ উদ্ধার হল মুম্বইয়ের ফ্ল্যাট থেকে। মৃত্যুর সময় তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৭ বছর।

মুম্বইয়ের অন্ধেরি ওয়েস্টের ইয়ারি রোড সংলগ্ন একটি ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন মহেশ। শনিবার সেখান থেকেই তাঁর পচাগলা দেহ উদ্ধার হয়। দেহ উদ্ধারের দুদিন আগে তাঁর মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা পুলিশের। তবে এখনও পর্যন্ত নিশ্চিত ভাবে কিছু জানা যায়নি। মৃতদেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। রিপোর্ট হাতে পেলেই মৃত্যুর সঠিক সময় ও কারণ জানা যাবে। আপাতত দুর্ঘটনাবশত মৃত্যুর মামলা দায়ের করেছে ভারসোভা থানার পুলিশ।

প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, অন্ধেরির ওই ফ্ল্যাটে একাই থাকতেন মহেশ। তাঁর স্ত্রী থাকেন রাশিয়ার মস্কোয়। অতিরিক্ত মদ্যপানের অভ্যাস ছিল অভিনেতার। তার জেরেই মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে বলে সন্দেহ পুলিশের। আবার আত্মহত্যার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: ‘মহালয়া’য় বীরেন্দ্রকৃষ্ণের বদলে উত্তম, মুক্তি পেল ট্রেলার​

আরও পড়ুন: স্পেশ্যাল ম্যাজিক দেখালেন মুমতাজ, দেখুন কী ভাবে…​

শাহেনশা’, কুলি নম্বর ওয়ান’, স্বর্গ, কুরুক্ষেত্র’ এবং বিজেতা’র মতো হিট ছবিতে একসময় কাজ করেছেন মহেশ আনন্দ। তা সত্ত্বেও সাফল্য ধরে রাখতে পারেননি তিনি। প্রায় ১৮ বছর সিলভার স্ক্রিন থেকে গায়েব ছিলেন। যার পর এ বছর জানুয়ারিতে গোবিন্দ অভিনীত রঙ্গিলা রাজা’র মাধ্যমে কামব্যাক করেন। সেই নিয়ে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে মহেশ লেখেন,  ‘‘১৮ বছর পর আমার একটা ছবি মুক্তি পেল। আশাকরি আমাকে ফের গ্রহণ করবেন দর্শক।’’ তবে বক্স অফিসে সাফল্য পায়নি রঙ্গিলা রাজা’।