Advertisement
০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
charu asopa

মেয়ের মুখটুকু দেখতে দেয় না, আকুতি সুস্মিতার ভাইয়ের, পাল্টা জবাব দিলেন ভ্রাতৃবধু চারু

বিচ্ছেদের পথে সুস্মিতা সেনের ভাই ও ভ্রাতৃবধূ। কিন্তু অভিযোগ, পাল্টা অভিযোগের পর্ব মিটছে না দু'তরফে। মেয়েকে দেখতে দেন না চারু, অভিযোগ ব্রহ্মাণ্ডসুন্দরীর ভাই রাজীবের। মুখ খুললেন চারু।

কোলের মেয়ে জিয়ানাকে নিয়ে দড়ি টানাটানি রাজীব-চারুর।

কোলের মেয়ে জিয়ানাকে নিয়ে দড়ি টানাটানি রাজীব-চারুর। সৌজন্যে-ইনস্টাগ্রাম।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুম্বই শেষ আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২২ ১৮:৫২
Share: Save:

সুস্মিতার সেনের বাড়ির খবর এখন যেন চর্চার বিষয়। প্রায় প্রতি দিনই সুস্মিতার ভাই ও ভ্রাতৃবধূর দাম্পত্যকলহ জায়গা করে নিচ্ছে সংবাদ শিরোনামে। কয়েক দিন আগে নিজের নতুন ভিডিয়োয় রাজীব জানান, স্ত্রী চারু আর মেয়ে জিয়ানার সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ রয়েছে। আর সেখান থেকেই শুরু যাবতীয় ধোঁয়াশার। কারণ, রাজীবের এমন মন্তব্যে অনেকেরই মনে হয়েছে, তবে কি সম্পর্ক স্বাভাবিক হওয়ার পথে? তবে এ বার নিজের অবস্থান থেকে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে রাজীব বলেন, কোলের মেয়ে জিয়ানার মুখটুকু দেখতে দেন না চারু। সুস্মিতার ভাইয়ের এই মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিলেন চারু।

Advertisement

তিনি জানান, রাজীব একেবারে ভুল বলছেন। চারুর কথায়, ‘‘সত্যিটা হল, সে নিজেই আসে না মেয়েকে দেখতে। আমি বরং উল্টে রাজীবকে বলেছি, সে যখন খুশি জিয়ানার সঙ্গে দেখা করতে আসতে পারে। আইনত সপ্তাহে তিন বার জিয়ানার সঙ্গে দেখা করার অনুমতি রয়েছে রাজীবের। কিন্তু আমি বলেছি, মেয়েকে যখন খুশি দেখতে আসতে পারে। আসার আগে শুধু এক বার যেন জানিয়ে দেয় আমাকে। আমি কখনই আমার সন্তানকে তার বাবার স্নেহ থেকে বঞ্চিত করতে চাই না।’’

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে অভিনেত্রী সুস্মিতা সেনের ভাই রাজীবের সঙ্গে বিয়ে হয় চারুর। কিন্তু দাম্পত্যকলহের কারণে বিয়ের পর থেকেই এই জুটি খবরের শিরোনামে। পারিবারিক অশান্তির জেরে গত অগস্ট মাসে রাজীব ও চারু বিবাহবিচ্ছেদের পথে হাঁটেন। তবে তার পরেও সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার শেষ চেষ্টা করেন এই দম্পতি। কিন্তু কোনও লাভ হয়নি। এ বার পাকাপাকি ভাবে বিচ্ছেদ চাইছেন দু’পক্ষই।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.