×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

রাধিকার সম্মান রাখতে ফ্যাশন শো-এ হাঁটবেন ঠাম্মি?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ২৩:০৬
‘কী করে বলব তোমায়’ ধারাবাহিকে কর্ণ-রাধিকা।

‘কী করে বলব তোমায়’ ধারাবাহিকে কর্ণ-রাধিকা।

২০০ পর্ব পেরিয়েই ফের চমক জি বাংলার জনপ্রিয় ‘কী করে বলব তোমায়’ ধারাবাহিকে। কর্ণ-রাধিকা সেনের নতুন পোশাকের কালেকশন বাড়ির সব বয়সের মেয়েদের জন্য। তাই তাদের ফ্যাশন শো-এ হাঁটবেন বাড়ির মেয়েরা। হাঁটবেন কর্ণের ঠাম্মিও!

২০০ পর্ব ছোঁয়ার দিন সাক্ষাৎকারে বিষয়টি নিয়ে হালকা আভাস দিয়েছিলেন ‘রাধিকা’ ওরফে স্বস্তিকা দত্ত। বলেছিলেন, ‘‘ফ্যাশন শো-এর একটি গুরুত্বপূর্ণ শটের শ্যুট চলছে। আমরা এই শো-এর মাধ্যমে নতুন কনসেপ্ট আনতে চলেছি। মডেল বললেই সবার চোখে ভাসে ছিপছিপে, লম্বা একদল সুন্দরী। নিখুঁত ভাইটাল স্ট্যাটিস্টিকস না মেনেও মডেল হওয়া যায়, দেখাবে কী করে বলব তোমায়।’’

সেই দৃশ্যই পর্দায় আসতে চলেছে ৭ ডিসেম্বর। এমনটাই জানা গিয়েছে পরিচালক অয়ন সেনগুপ্তের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে। কেমন সেই শো? কর্ণের মা, মণি-সহ বাড়ির বাকি মেয়েরা ডিজাইনার রাধিকার শাড়ি ঘরোয়া ভাবে পরে সেজে উঠবেন। ব্লাউজ থেকে অলঙ্কার, সবেতেই আভিজাত্য আর আধুনিকতার মিলমিশ।

আরও পড়ুন: নিজেকে খতম করে দিতে চেয়েছিলেন গায়ক কৈলাস খের, আঙুল বলিউডের দিকে


বাড়ির মেয়েরা র‍্যাম্পে হাঁটবেন, অবশ্যই বড় চমক। তার থেকেও বিস্ময়ে হাবুডুবু খাইয়ে দেওয়ার মতো দৃশ্য, কর্ণের ঠাম্মি হাঁটবেন রাধিকার তৈরি শো-স্টপারের পোশাকে। যা পরে হাঁটার কথা ছিল রাধিকার।

Advertisement




জেনে বুঝেই এই অদলবদল? দৃশ্য বলছে, ভালবাসার টানে নাত বৌয়ের সম্মান বাঁচাতে এই পদক্ষেপ ঠাম্মির। পুরো শো ভন্ডুল করতে জা পায়েল ফেলে দেয় রাধিকাকে। পায়ে চোট পেয়ে কিছুতেই যখন উঠে দাঁড়াতে পারছে না রাধিকা তখনই তার শাড়িতে সেজে শো-এ উপস্থিত ঠাম্মি।

যিনি ‘ঘণ্টু’ অর্থাৎ কর্ণের বৌয়ের উপর একেবারেই খুশি ছিলেন না!

আরও পড়ুন: গৃহে প্রবেশ শ্রীময়ীর, থাকবেন না যাবেন অনিন্দ্যর হবু সন্তানের মা জুন?

পুজোর সময় থেকে প্রেম, খুনসুটিতেই সব পর্ব মাতোয়ারা। এখন ঠাম্মিও মেনে নিয়েছেন নাতবৌকে। কর্ণ-রাধিকার জীবনে কি স্বস্তি এল? উত্তরে স্বস্তিকা জানিয়েছিলেন, ‘‘এত সুখ নেই কর্ণ-রাধিকার কপালে। কোনও দিনই এক ভাবে জীবন কাটবে না ওদের। আবার বড় ধরনের ট্যুইস্ট আসছে ধারাবাহিকে। যার ধাক্কায় রাধিকার জীবন ১৮০ ডিগ্রি বদলে যাবে।’’

Advertisement