×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

‘মাকে ছেড়ে চলে যাওয়ার পর আমার শিক্ষা নিয়ে কী ভাবে প্রশ্ন করেন আমার বাবা’

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুম্বই২৪ নভেম্বর ২০২০ ১৪:৪৭
বাবার সঙ্গে জান কুমার শানু। ফাইল চিত্র।

বাবার সঙ্গে জান কুমার শানু। ফাইল চিত্র।

তাল কাটল বাবা-ছেলের সম্পর্কে। কুমার সানুকে একহাত নিলেন পুত্র জান সানু। দিন কয়েক আগে ছেলের খারাপ আচরণের জন্য গায়ক তাঁর প্রাক্তন স্ত্রীকে দায়ী করেছিলেন। বিগ বসের বাড়ির ঘেরাটোপ থেকে বেরিয়ে আসার পর বাবাকে তাঁর অভিযোগের পাল্টা জবাব দিতে দেরি করলেন না ছেলে।

কী ভাবে শুরু হয় এই বাক- বিতণ্ডা?

বিগ বসে থাকাকালীন জান সানু মরাঠি ভাষা নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। একটি নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দল তাঁর এই মন্তব্যকে ভাল ভাবে না নিতে পারায় তুমুল উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। ছেলের পক্ষ থেকে বাবা কুমার শানু সেই রাজনৈতিক দলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু জান সেই সময় বিগ বসের বাড়ির ভিতরে থাকায়, বাইরে ঘটে যাওয়া এই হই হট্টগোল সম্পর্কে অবগত ছিলেন না।

কুমার শানু বলেছিলেন যে, তিনি জানেন না তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী রিতা ভট্টাচার্য কোন ধরনের শিক্ষা দিয়ে ছেলেকে বড় করেছেন। বাবার করা এই মন্তব্যেই বেজায় চটেছেন ছেলে। মুম্বইয়ের এক সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, “আমি জন্মানোর আগেই আমার বাবা আমার মাকে ছেড়ে দিয়েছিলেন। উনি আমার শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তোলার কে বা আমি কী শিক্ষা পেয়ে বড় হয়েছি সেটাই বা তিনি কী করে জানবেন? এ রকম মন্তব্য করে তিনি ঠিক করেননি। কেউ ওঁর কাছে কোনও মতামত জানতে চায়নি। উনি নিজেই একটা অপমানজনক ভিডিয়ো তৈরি করে আমার শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। আমি সম্পূর্ণ ভাবে আমার মায়ের কাছে বড় হয়েছি।”

Advertisement

আরও পড়ুন: একাই বড় করছেন মেয়েকে, পর্দার জনপ্রিয় পুত্রবধূ জুহির বাস্তব জীবনে দাম্পত্য ছিল ‘প্রেমহীন’

এখানেই থেমে থাকেননি একদা বলিউডের প্রথম সারির গায়কের পুত্র। তাঁর মতে, স্বয়ং সলমন খান যদি তাঁর বড় হওয়া বা শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন না তোলেন তা হলে কেউই তাঁর দিকে অঙ্গুলিনির্দেশ করতে পারে না। তাঁর কথায়, “আমি সত্যিই জানিনা আমার বাবা কী চান। প্রথমে তিনি এ রকম একটি ভিডিয়ো তৈরি করলেন। তারপর আবার তিনি আমার প্রশংসা করে ভিডিয়ো তৈরি করলেন। যদি কারও মতামত এতটা পরিবর্তনশীল হয় তবে তাঁর কথার কোনও গুরুত্ব নেই।”

আরও পড়ুন: ভালবাসা একান্তই ব্যক্তিগত অনুভূতি, ‘লভ’-এর সঙ্গে ‘জিহাদ’-এর সহাবস্থান নেই: নুসরত

এরপর সুর কিছুটা নরম করেন জান। বাবার এই কাজে তিনি ব্যথিত। কেন তিনি এ রকম করলেন সে কথাও তাঁর কাছে জানতে চাইবেন বলে জানিয়েছেন জান। তিনি বলেন, “যতই হোক তিনি আমার বাবা। আমি তাঁকে ভালবাসি এবং শ্রদ্ধা করি। তাঁর সঙ্গে কথা হলে হয় তো পুরো বিষয়টি সম্পর্কে আমার ধারণা আরও স্পষ্ট হবে।”

Advertisement