Advertisement
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
KK

RIP KK: গানেই ধরে রাখা শিল্পীকে , সত্যনারায়ণ পুজো করে কলকাতায় শুরু কেকে ফ্যান ক্লাব

কলকাতার হৃদয় জুড়ে কেকে। গায়কের স্মৃতিতে শহরে তৈরি হল কেকে ফ্যান ক্লাব। পুজোয় করে, শিল্পীরই গানে শুরু তার পথচলা।

মঙ্গলবারের সকালে সত্যনারায়ণ পুজো করে শুরু পথচলা শুরু করল কেকে ফ্যান ক্লাব। 

মঙ্গলবারের সকালে সত্যনারায়ণ পুজো করে শুরু পথচলা শুরু করল কেকে ফ্যান ক্লাব।  নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ জুন ২০২২ ১৪:৪৩
Share: Save:

এক সপ্তাহ পার। কলকাতায় অনুষ্ঠান করতে এসে কেকে-র অকালমৃত্যুর শোক এখনও আচ্ছন্ন করে রেখেছে বাঙালিকে। শিল্পীর প্রতি, তাঁর গানের প্রতি এই ভালবাসা, আবেগকে এ বার স্থায়ী রূপ দিতে চাইলেন সদ্যপ্রয়াত বলিউড গায়কের অনুরাগীরা। এ শহরে গড়ে উঠল কেকে ফ্যান ক্লাব।

গত ৩১ মে সন্ধ্যায় নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠান ছিল কৃষ্ণকুমার কুন্নাথের। গানে, প্রাণবন্ত উপস্থিতিতে দর্শকদের মাতিয়ে রেখেছিলেন কেকে। অনুষ্ঠান শেষে জনজোয়ার পেরিয়ে হোটেলে ফেরা। সেখানেই আচমকা অসুস্থতা। হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালের পথেই মৃত্যু। ঘণ্টা দুয়েক আগেও যিনি মঞ্চ মাতিয়ে রেখেছিলেন, তাঁর এমন পরিণতি আজও মেনে নিতে পারেনি কলকাতা। রবিবার ১০০ জনের কণ্ঠে এ শহর গেয়ে উঠেছিল কেকে-র ‘পল’। রোজই শহরের অলিতে-গলিতে ঘুরেফিরে শোনা যাচ্ছে তাঁর বিভিন্ন গান। একাধিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমেও শিল্পীকে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানানো চলছে। কেকে-র অকালমৃত্যুর এক সপ্তাহ পরে, আর এক মঙ্গলবারের সকালে সত্যনারায়ণ পুজো করে শুরু পথচলা শুরু করল কেকে ফ্যান ক্লাব।

ঠিক কোন ভাবনা থেকে এমন উদ্যোগ?

কেকের এক অনুরাগী অমৃতা সিংহ সেই রাতে উপস্থিত ছিলেন নজরুল মঞ্চে। কেকে ফ্যান ক্লাব তৈরির এই পরিকল্পনা তাঁরই। অমৃতা বলেন, ‘‘মঙ্গলবার ছিল আমার জীবনের চরম আনন্দ ও দুঃখের দিন। বহু দিন থেকেই কেকে লাইভে থাকার ইচ্ছে ছিল। সেই সুযোগও মিলে যায়। অনুষ্ঠান দেখে একরাশ আনন্দ নিয়ে ফিরেছি। ভাবতে পারিনি এমন সাংঘাতিক দুঃসংবাদ অপেক্ষা করছে। কিছু ক্ষণ আগেই যাঁকে দেখে এলাম, সেই স্বতঃস্ফূর্ত মানুষটাই আর নেই! তাঁর গান আর শোনা যাবে না! বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। বিশ্বাস করতে চাই-ও না। কেকে-কে বাঁচিয়ে রাখব কী ভাবে, সেই ভাবনা থেকেই এই ফ্যান ক্লাব তৈরির কথা মাথায় আসে।’’

ক্লাবে গাইতে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে অনামী শিল্পীদের। তাঁরা সকলে গাইবেন কেকের গান। কোনও বিখ্যাত শিল্পীকে ডাকা হল না কেন? উত্তরে ফের গত এক সপ্তাহে শোরগোল ফেলা বিতর্কের আঁচ। অমৃতা বলেন, ‘‘বিখ্যাত শিল্পীরা কেউ কেউ তো জানেনই না কেকে কে, তাঁদের আমরা কেন ডাকব? যাঁর গান আমাদের প্রাণ, সেই মানুষটা হারিয়ে যাওয়ার কষ্ট আমরা অনুরাগীরা বুঝতে পারি। প্রিয় শিল্পীকে তাই বাঁচিয়ে রাখব আমরাই। কোনও বিখ্যাত মানুষের দরকার নেই।’’ উদ্যোক্তারা জানান, কেকে-র অনুরাগীরা ক্লাবে নাম লেখাতে পারবেন নিখরচায়। ক্লাবের সদস্যরা এক ছাদের তলায় থেকে কাজ করবেন গানের জন্যই। শুধু তা-ই নয়, দুঃস্থ শিল্পী বা নতুন শিল্পীদের সাহায্য করতে পাশে থাকবে এই ক্লাব।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.