Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২
lalit modi

Lalit-sushmita: মধ্যযুগে বাস করছি নাকি! দু’জন মানুষ কাছাকাছি আসতে পারে না? প্রশ্ন ক্ষুব্ধ ললিতের

সুস্মিতা আর ললিত প্রেম করছেন শুনে কৌতুকে মেতেছেন অনেকে। হাসি, বাঁকা মন্তব্যের ঝড় সামলে এ বার গর্জে উঠলেন ললিত।

 এত হাসাহাসি কিসের? গর্জে উঠলেন ললিত

এত হাসাহাসি কিসের? গর্জে উঠলেন ললিত

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ১৭ জুলাই ২০২২ ১০:০৭
Share: Save:

সুস্মিতা সেন ৪৬, আর ললিত মোদী ৫৬। তাই বলে পরস্পর কাছাকাছি আসতে পারেন না? এই বয়সে মনের মিল হতে পারে না? তাঁদের রসায়ন নিয়ে লোকজন এত হাসাহাসি করছে কেন? এ বার সেই প্রশ্নই তুললেন ক্ষুব্ধ ললিত।

Advertisement

সুস্মিতার সঙ্গে সদ্য মলদ্বীপ সফর থেকে ফিরে গর্জে উঠলেন প্রাক্তন আইপিএল কর্তা। লিখলেন, ‘আমরা কি এখনও মধ্যযুগে বাস করছি? দু’জন মানুষ বন্ধু হতে পারে না? সময় ভাল কাটলে তাদের মধ্যে জাদু কাজ করতে পারে না? মিডিয়া আমাদের এই ভাবে ট্রোল করছে কেন? আমার উপদেশ হল, আপনারা নিজেরা বাঁচুন এবং অন্যদের বাঁচতে দিন। সঠিক খবর লিখুন, গসিপ নয়। তথ্য যদি সঠিক ভাবে না জানেন, আমায় বলুন, আমি বলে দিচ্ছি। মিনাল মোদী আর আমি ১২ বছরের বিবাহিত জীবনে সেরা বন্ধুত্বে ছিলাম। তিনি আমার মায়ের বন্ধু ছিলেন না। এই কথাটা কেন রটেছে জানি না! তবে এই ধরনের বিকৃত মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসার সময় হয়েছে। আসলে যখন কারও ভাল হয়, বাকিরা সহ্য করতে পারেন না।’

ললিত আর সুস্মিতা যে সম্পর্কে জড়িয়েছেন সে কথা ১৪ জুলাই ঘোষণা করেছিলেন তাঁরা। একসঙ্গে ছবি দিয়ে ললিত ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, এই সম্পর্ক বিয়ে অবধি গড়াতে পারে। তার পর পরই যুগলের মলদ্বীপ সফরের একগুচ্ছ ছবি সামনে আসে। তার মধ্যে কয়েকটি ছবি সুস্মিতাকে ট্যাগ করতে গিয়ে ললিত ভুল করে ফেলেন। অভিনেত্রীর প্যারোডি প্রোফাইলে ট্যাগ হয়ে যায়।সে নিয়ে আবারও হাসাহাসি। যার জবাবও কড়া ভাবেই দিলেন সুস্মিতার প্রেমিক। বললেন, ‘না হয় ভুল করেছিলাম। তা নিয়ে এ রকম করতে হবে?’

সুস্মিতাকেও যে অনেকে ঘৃণার চোখে দেখছেন এ কথা অজানা নয় ললিতের। লোকে তাঁকে অপরাধী ভাবে, তিনি কলঙ্ক নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন— এমন নানা বিষয় নিয়েও নিয়েও সম্প্রতি সোচ্চার হলেন ললিত।

Advertisement

লিখেছেন, ‘কে বলে আমি পালিয়ে বেড়াচ্ছি? আমি সব সময় মাথা উঁচু রেখেছি। আপনারা আমায় পলাতক বলুন, আসামি বলুন, তবে কখন কোন আদালত আমায় দোষী সাব্যস্ত করেছে সেটা বলতে পারবেন? বলুন দেশের আর এক জনও এমন সুন্দর কিছু বানিয়ে মানুষকে উপহার দিয়েছে? কিন্তু আমি পেরেছি। সবটা একা করেছি। সেই সঙ্গে বলি, হিরের চামচ মুখে দিয়ে জন্মেছি আমি! আমায় ঘুষ নিতে হয় না। আমি যখন বিসিসিআইতে যোগদান করি তখন ব্যাঙ্কে ৪০ কোটি টাকা ছিল। ২০০৫ সালে আমি আমার জন্মদিন, ২৯ নভেম্বর কাজে যোগ দিয়েছিলাম। জানেন আমাকে নিষিদ্ধ করার সময় ব্যাঙ্কে কত ছিল? ৪৭,৬৮০ কোটি টাকা। আমি কোথা থেকে শুরু করব কেউ ভেবেছিল?’

রোহমান শলের সঙ্গে সম্পর্কে ইতি টেনে ললিতের সঙ্গে নতুন সফর শুরু করলেন প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরী সুস্মিতা। প্রাক্তন স্ত্রী মিনাল মোদীর মৃত্যুর প্রায় চার বছর পর নতুন জীবনে পা রাখলেন ললিতও। একসঙ্গে চিরন্তন সুখের স্বপ্ন দেখছেন যুগল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.