Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

তিনি বাঙাল না ঘটি, চিংড়ির মালাইকারি রেঁধে আনন্দবাজার ডিজিটালকে উত্তর দিলেন মধুমিতা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২০ এপ্রিল ২০২১ ১৬:১৮
মধুমিতা সরকার।

মধুমিতা সরকার।

কথায় আছে, যে রাঁধে, সে চুলও বাঁধে।

বেশির ভাগ সময় কাজ নিয়ে ব্যস্ত মধুমিতা। নেটমাধ্যমেও যথেষ্ট সক্রিয়। কিন্তু অভিনয়, ছবির প্রচার, ইনস্টাগ্রাম, টুইটারের বাইরে বাড়ির রান্নাঘরটা ভীষণ প্রিয় অভিনেত্রীর। ফাঁক পেলেই তাই টুক করে বানিয়ে ফেলেন মনের মতো কোনও পদ। ঠিক যেমনটা করলেন মঙ্গলবার দুপুরে।

মধুমিতার ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে ভেসে উঠল চিংড়ি মাছের ছবি। আরেক দিকে দেখা গেল কড়াইতে ফুটন্ত মশলা। তার সঙ্গেই অভিনেত্রী প্রশ্ন জুড়ে দিয়েছেন, ‘ঝাল না মিষ্টি?’

দুপুর বেলায় চিংড়ির মালাইকারি সহযোগে ধোঁয়া ওঠা ভাত দিয়ে হবে মধুমিতার রসনাতৃপ্তি। তবে বিশেষ কোনও কারণ আছে কি? আনন্দবাজার ডিজিটালকে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, হাতে সময় থাকলেই রান্না করেন। কখনও চিংড়ি বাটা, কখনও আবার কষা মাংস, নানা রকম পদ তৈরি করে খেতে ভালবাসেন তিনি। মধুমিতার কথায়, “আমাকে রান্নাবান্না করতে একজন সাহায্য করেন। তবে মাছ, মাংস থাকলে মাঝেমধ্যেই আমি রেঁধে ফেলি। আজ মনে হল, রান্নার আগে একটা স্টোরি শেয়ার করি।”

Advertisement
মধুমিতার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি।

মধুমিতার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি।


এমনিতে মধুমিতা ঘটি। তবে তাঁর মতে, তিনি নিজে রান্না করতে এবং খেতে ভালবাসেন খাস বাঙালদের মতো। তাঁর কথায়, “খাবারে ১০-১২টা লঙ্কা না থাকলে আমার চলে না। আজ কাদের মতো করে রান্না করব, বুঝতে পারছিলাম না। তাই স্টোরিতে প্রশ্ন করেছিলাম। মিষ্টি হলে ঘটিদের মতো করতাম, ঝাল হলে বাঙালদের মতো।”

সেই প্রশ্ন করা যদিও বিফলে। শেষমেশ নিজের মনের মতো ঝাল দিয়েই রেঁধেছেন চিংড়ির মালাইকারি। টলিউডের ‘চিনি’ হলেও খাবার পাতে ঝালেই মজে থাকে মধুমিতার মন।

আরও পড়ুন

Advertisement