Advertisement
১৮ জুলাই ২০২৪
Bollywood Gossip

ব্যবসায়ী পরিবারে ঘটকালি ছেড়ে এ বার বলিউডে! কোন তারকার বিয়ের দায়িত্ব নিলেন সীমা তাপারিয়া?

ওটিটি প্ল্যাটফর্মের দৌলতে এত দিন বিত্তশালী ব্যবসায়ী পরিবারের পাত্রদের হয়ে ঘটকালি করতেন। এ বার বলিউড তারকাদের বিয়ে দেওয়ার দায়িত্ব নিলেন সীমা তাপারিয়া।

Sima Taparia takes on her first Bollywood matchmaking job, sets up Jubin Nautiyal, Adah Sharma

সীমা তাপারিয়া। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
মুম্বই শেষ আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৬:৩৮
Share: Save:

ঘটকালি করাই তাঁর পেশা। গত কয়েক বছরে নিজের সেই পেশাকে অন্য উচ্চতায় নিয়ে গিয়েছেন সীমা আন্টি তথা সীমা তাপারিয়া। ২০২০ সাল থেকে যাত্রা শুরু ওটিটি প্ল্যাটফর্মের অন্যতম চর্চিত রিয়্যালিটি শো ‘ইন্ডিয়ান ম্যাচমেকিং’-এর। সীমা আন্টির সঞ্চালনায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল এই অনুষ্ঠান। এই রিয়্যালিটি শো নিয়ে নেটাগরিকদের বড় অংশ নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া জানালেও অনুষ্ঠানের জনপ্রিয়তায় এতটুকু ভাটা পড়েনি। ২০২০ সাল থেকে শুরু করে এখনও পর্যন্ত মোট তিনটি সিজ়ন মুক্তি পেয়েছে এই রিয়্যালিটি শোয়ের। চলতি বছরের এপ্রিল মাসে মুক্তি পেয়েছে ওই রিয়্যালিটি শোয়ের তৃতীয় সিজ়ন। চতুর্থ সিজ়ন নিয়ে এখনও কোনও নিশ্চয়তা না থাকলেও সীমা আন্টির হাতে কাজের খামতি নেই। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম থেকে এ বার বলিউডের দিকে পা বাড়ালেন তিনি। এ বার নাকি দায়িত্ব নিয়ে বলিউড তারকাদের বিয়ে দেবেন তিনি!

সম্প্রতি ইউটিউবে মুক্তি পেয়েছে একটি ভিডিয়ো যাতে দেখা যাচ্ছে ‘দ্য কেরালা স্টোরি’ খ্যাত অভিনেত্রী অদা শর্মার ম্যাচমেকিং করছেন সীমা। অদার জন্য কোন পাত্রকে পছন্দ করলেন তিনি? পাত্র হলেন বলিউডেরই এক গায়ক, তাঁর নাম জ়ুবিন নৌটিয়াল। ‘রাবতা’ খ্যাত গায়কের সঙ্গে অদার জুটি নাকি বেশ ভাল জমবে, দাবি সীমা আন্টির। তবে কি সীমার পরামর্শ মেনে সত্যিই জ়ুবিনের সঙ্গে প্রেম করবেন অদা? আদপে তা একেবারেই নয়। খুব শীঘ্রই মুক্তি পেতে চলেছে জ়ুবিনের একটি গান। সেই গানেই নাকি থাকছেন অদা। ওই গানের প্রচারের জন্যই এমন অভিনব কৌশল অবলম্বন করেছেন জ়ুবিন ও অদা। তবে সুযোগ পেলে যে বলিউড তারকাদের ঘটকালি করতে পিছপা হবেন না সীমা আন্টি, তা বেশ বোঝা গিয়েছে ওই ভিডিয়োতেই।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সম্পর্কের ভাঙন নিয়ে মুখ খুলেছিলেন সীমা। পুরনো দিনের তুলনায় বর্তমান প্রজন্মে বিবাহবিচ্ছেদের হার আপাতদৃষ্টিতে বেশি। তা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে সীমা জানান, তাঁর সম্বন্ধ করা কারওই এখনও পর্যন্ত বিয়ে ভাঙেনি। সীমা বলেন, ‘‘আজকাল বিবাহবিচ্ছেদের হার এত বেড়ে গিয়েছে, কারণ মেয়েরা আর সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার জন্য আপস করতেই চান না। না এঁদের ধৈর্য আছে, না কারও সঙ্গে মানিয়ে চলার মানসিকতা। সেই কারণেই সম্পর্কে সমস্যা তৈরি হয়।’’ সম্পর্কে চিড় ধরার নেপথ্যেও দায় নাকি নারীদেরই। সীমার যুক্তি, ‘‘আজকাল মেয়েরা এত বেশি শিক্ষিত হয়ে গিয়েছেন যে, তাঁরা অন্য কারও কথা শুনতেই চান না। সেই কারণেই সম্পর্ক টেকে না।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE