×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

Sreelekha and Rimjhim: শ্রীলেখার শরীর নিয়ে অশ্লীল মন্তব্য বিজেপি সমর্থক রিমঝিম মিত্রের?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ মে ২০২১ ১৪:১০
শ্রীলেখাকে রিমঝিমের কটাক্ষ?

শ্রীলেখাকে রিমঝিমের কটাক্ষ?

বিজেপি সমর্থক রিমঝিম মিত্র কি সরাসরি শরীর নিয়ে আক্রমণ করলেন বামপন্থী শ্রীলেখা মিত্রকে? নেটমাধ্যমে শ্রীলেখার নতুন ছবি ও লেখা থেকে এই ঘটনা স্পষ্ট।

টলিউডের ভিতরে বা বাইরে, শরীরের আকার ও গঠন নিয়ে কটূক্তি শুনতে অভ্যস্ত শ্রীলেখা। কখনও শুনতে হয়েছে ‘মোটা’, কখনও বা ‘এত তো শরীর চর্চা করেন, কই কমেননি তো একটুও’। বুধবার সেই কথাগুলোর জবাব দিলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। ছবি দিলেন ফেসবুকে। হালকা গোলাপি রঙের কাঁধ খোলা পোশাকে আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে ছবি তুলেছেন তিনি। তাঁর লেখা থেকে জানা গেল, এই পোশাক তিনি কোনও দিন বাইরে পরেননি। দাম লেখা ছোট্ট কাগজের টুকরো এখনও সেই জামার সঙ্গেই আটকানো। তার কারণ, তাঁর শরীরের গঠন, আকার এবং আকৃতি নিয়ে চর্চা শুনতে শুনতে ক্লান্ত তিনি।

Advertisement
রিমঝিমের মন্তব্য

রিমঝিমের মন্তব্য


শুধু ছবি নয়, অভিনেত্রী রিমঝিম মিত্রের মন্তব্যকেও সামনে এনেছেন শ্রীলেখা। যদিও রিমঝিমের বক্তব্যে শ্রীলেখা মিত্রের নাম নেই, কিন্তু রিমঝিমের ওই বক্তব্যকে সামনে এনে শ্রীলেখা দাবি করেছেন, এটা তাঁকে নিয়েই লেখা। মন্তব্য বাক্সে শ্রীলেখা জানিয়েছেন, মার্চ মাসে এ রকম একটি কটূক্তি করেছিলেন রিমঝিম।

রিমঝিম মিত্র লিখেছিলেন, ‘থলথলে বৌদি আমায় ব্লকিয়েছে। কমরেট মাংস পিন্ড কি এটা ঠিক করল আমার সঙ্গে’? শেষে নরেন্দ্র মোদীর নাম পাল্টে উপহাস করে রিমঝিম লিখেছেন, ‘মুডি মাস্ট রিজা‌ইন’। শ্রীলেখা এই বক্তব্যকে সামনে এনে বোঝাতে চাইলেন, শুধু নেটাগরিকরাই নন, টলিউডের আরও এক সহকর্মীর কাছ থেকেও তাঁকে এই ধরনের অপমানজনক মন্তব্য শুনতে হয়েছে। তাও আবার সেই সহকর্মী এক মহিলা।


সেই সব কটাক্ষের জবাবেই বুধবার কাঁধ খোলা জামা পরে ছবি দিলেন শ্রীলেখা। জানালেন, অপমানজনক কথাবার্তাগুলো আর তাঁকে আঘাত করে না। শ্রীলেখা জানেন, ৪০ পেরিয়েও যথেষ্ট স্বাস্থ্যবতী তিনি। যখন ২০-র কোঠায় বয়স ছিল, তার থেকেও আজ তিনি অনেক বেশি সতেজ। তাই তাঁর কথায়, ‘ফ্যাট হওয়া নিয়ে যায় আসে না। ফিট থাকাটাই আসল’। নিজেকে সুস্থ রাখতে শরীরচর্চা করেন নিয়মিত। রোগা হওয়ার জন্য নয়।

‘আমি খাদ্যরসিক’, গর্বের সঙ্গে স্বীকারোক্তি অভিনেত্রীর। লিখলেন, ‘হয়তো তার কারণ আমার বংশের সকলেই খেতে ভালবাসেন’। কিন্তু একইসঙ্গে তিনি জানালেন, বাইরের দুনিয়ার সঙ্গে তাঁর এই লড়াই দীর্ঘদিনের। তাঁর হাঁটুর সমস্যার জন্য বহু দিন শরীরচর্চা করারও ক্ষমতা ছিল না। ছবির কাজ হারানোর ভয়ে সে কথাও লুকিয়ে রাখতে হয়েছিল। কিন্তু আজ সেই বাধা নেই। নিজেকে সুস্থ রাখতে সব রকম পদক্ষেপ তিনি করতে পারেন। তার ফলাফল হিসেবেই অনেক দিন আগের কেনা পোশাক পরে ছবি দিলেন তিনি।

Advertisement