শাহরুখ এগিয়ে এসেছিলেন, অর্চনাকে বাঁচাতে ছুড়ে দিয়েছিলেন নিজের জ্যাকেট এবং শেরওয়ানিও। কিন্তু ঐশ্বর্যাই নাকি ‘আসল হিরো’। ঐশ্বর্যার ম্যানেজার অর্চনা সদানন্দের গায়ে বচ্চন বাড়িতে দিওয়ালির দিন আগুন লেগে যাওয়ার ঘটনা নিয়ে এমনটাই দাবি করলেন অর্চনার আত্মীয় কুনিকা সদানন্দ।

সংবাদ মাধ্যমে কুনিকা বলেন, “হ্যাঁ, শাহরুখ সঙ্গে সঙ্গে তাঁর শেরওয়ানি ছুড়ে দিয়ে তাঁকে রক্ষা করতে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন, কিন্তু ঐশ্বর্যা যা করেছেন তাতে ওঁকেই প্রকৃত অর্থে নায়ক বলা যায়।’’

কী করেছিলেন ঐশ্বর্যা? কুনিকার কথায়, “অর্চনাকে বাঁচাতে ছুটে এসেছিলেন তিনি। ওঁর পোশাকে আগুন লেগেছিল। উপায় না দেখে হাত দিয়েই আগুন নেভাতে এগিয়ে যান অ্যাশ। উনি যদি সেদিন তা না করতেন আরও মারাত্মক কিছু হতে পারত।”

আরও পড়ুন- ‘রাধে’-তে ৫৩-র সলমনের বিপরীতে থাকছেন ২৬ বছরের ছোট গ্ল্যামারাস নায়িকা!

 

আরও পড়ুন-জন্মদিনে শাহরুখকে কী বলে ডাকলেন মমতা, জানেন?

 

ঠিক কী হয়েছিল সে দিন? দিওয়ালির রাত। বচ্চন পরিবারে চলছিল জোরদার পার্টি। শাহরুখ-গৌরী থেকে শুরু করে বলিউডের তাবড় ব্যক্তিত্বের ভিড় উপচে পড়েছিল সেখানে। রাত প্রায় তিনটে। অতিথিরাও একে একে বিদায় নিচ্ছেন। সেই সময়েই আচমকা প্রদীপ থেকে ঐশ্বর্যা রাই বচ্চনের ম্যানেজার অর্চনা সদানন্দেরপোশাকে আগুন ধরে যায়। বচ্চনের বাংলো‘জলসা’য় সবসময় একটি অ্যাম্বুল্যান্স রেখে দেওয়া হয়। সেটিতে করেই অর্চনাকে নিয়ে যাওয়া হয় মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে।

দেহের ১৫ শতাংশ পুড়ে গেলেও আপাতত ভাল আছেন অর্চনা, পরিবার সূত্রে এমনটাই জানানো হয়েছে।