Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Tollywood Actor

অজগরের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে নিন্দার শিকার সোহম, কী বললেন অভিনেতা?

বৃহস্পতিবার উত্তরবঙ্গে ‘প্রধান’-এর শুটিং লোকেশনে একটি বিশালাকার অজগর সাপ ধরা পড়ে। সাপের সঙ্গে ছবি পোস্ট করে সমালোচনার শিকার হন ছবির অভিনেতা সোহম চক্রবর্তী।

Tollywood actor Soham Chakraborty faces criticism after posting a photo with an Indian Rock Python on social media

শুটিংয়ের জায়গা থেকে উদ্ধার হওয়া অজগর হাতে সোহম। ছবি: সংগৃহীত।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৩:২২
Share: Save:

বৃহস্পতিবার সকালে একটি প্রকাণ্ড অজগরের সঙ্গে অভিনেতা সোহম চক্রবর্তীর ছবি ভাইরাল হতে বেশি সময় নেয়নি। সাপের সঙ্গে তাঁর ছবি দেখার পর সমাজমাধ্যমে অভিনেতাকে সমালোচনার সম্মুখীন হতে হয়। শুক্রবার এই প্রসঙ্গে সমাজমাধ্যমেই জবাব দিয়েছেন সোহম।

এই মুহূর্তে ‘প্রধান’ ছবির শুটিং চলছে উত্তরবঙ্গে। ছবিতে দেব ছাড়াও টলিপাড়ার বহু অভিনেতা রয়েছেন। বৃহস্পতিবার সকালে অভিনেতাদের হোটেলের নীচ থেকে উদ্ধার হয় এক বিশালকায় অজগর। প্রকাণ্ড ইন্ডিয়ান রক পাইথনটির একটি ছবি-সহ সমাজমাধ্যমে তাঁর অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিয়েছিলেন অভিনেতা বিশ্বনাথ বসু। অন্য দিকে, সাপটির সঙ্গে ছবি তুলে ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন সোহম। তার পরেই অভিনেতাকে ঘিরে শুরু হয় বিতর্ক। অনেকের অভিযোগ, বন্যপ্রাণীর সঙ্গে সঠিক আচরণ করা হয়নি।

শুক্রবার ইনস্টাগ্রামে সাপের সঙ্গে একই ছবি আবার পোস্ট করে এই প্রসঙ্গে সোহম তাঁর মনোভাব ব্যক্ত করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘‘দেখছি, কিছু মানুষ পুরো বিষয়টা না জেনেই নিজেদের মতো মতামত জানাচ্ছেন। হয়তো তাঁরা পুরো বিষয়টার সঙ্গে অবগত নন।’’ এরই সঙ্গে সোহম জানিয়েছেন, অজগরটিকে সুরক্ষিত ভাবে বন দফতরের কর্মীরা উদ্ধার করে নিয়ে গিয়েছেন। সোহম লিখেছেন, ‘‘হোটেলের নীচে গিয়ে বন দফতরের কর্মীদের সাহায্য করতেই সাপটিকে ধরি। ওর ক্ষতি করার কোনও ইচ্ছে আমার ছিল না।’’

বৃহস্পতিবার সমাজমাধ্যমে অনেকেই এই ঘটনায় দেবের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। এই প্রসঙ্গে সোহম লেখেন, ‘‘এই ঘটনায় যে দেবের নাম নেওয়া হচ্ছে, সেটাও ঠিক নয়। কারণ, তিনি বারান্দা থেকে পুরো ঘটনাটি দেখছিলেন।’’ সোহম আরও লিখেছেন, ‘‘হয়তো আবেগের বশে ছবি তোলা হয়েছে ঠিকই। কিন্তু অত বড় সাপটিকে কারও ক্ষতি না করে কী ভাবে রাখা যায় তার জন্য সবাই সাহায্য করতেই চেয়েছিলেন।’’

এরই সঙ্গে সমাজমাধ্যমে সোহমের উদ্দেশে যে কটু কথা ব্যবহার করা হয়েছে ওই পোস্টে তার তীব্র প্রতিবাদ করেছেন সোহম। তাঁর কথায়, ‘‘বাংলা ভাষার অপপ্রয়োগ করে হিরো হওয়া যায় না। হিরো হতে গেলে অনেক কাজ আছে, সেগুলো করে নিজের পরিবারকে গর্বিত করো।’’ এই প্রসঙ্গে আনন্দবাজার অনলাইনের তরফে সোহমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। ক্ষুব্ধ অভিনেতা বললেন, ‘‘আমি লিখতে বাধ্য হলাম। না জেনে মন্তব্য করা উচিত নয়।’’ এ রকম পরিস্থিতিকে কী ভাবে দেখেন তিনি? সোহম বললেন, ‘‘এখন আর মাথা ঘামাই না। অভ্যাস হয়ে গিয়েছে। আমাদের গালাগাল করে কেউ জনপ্রিয় হতে চাইলে আমি নিরুপায়।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE