Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Ranbir Kapoor

Ranbir-Alia Wedding: দীপিকা-ক্যাটরিনা নয়, একমাত্র আলিয়াকেই সম্পর্কের প্রথম থেকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন রণবীর

কীসের জোরে রণবীর কপূরের জীবনসঙ্গী হয়ে উঠলেন আলিয়া ভট্ট? লাখ টাকার এই প্রশ্নই আপাতত ঘুরপাক খাচ্ছে অসংখ্য অনুরাগীর মনে। 'রণলিয়া' এখন 'মিস্টার  অ্যান্ড মিসেস কপূর'। কোন জাদুবলে বিয়ের পিঁড়িতে পৌঁছল তাঁদের সম্পর্ক— সে রহস্য ফাঁস করলেন জুটির ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা। 
 

প্রথম দেখাতেই আলিয়াকে ভালবেসেছিলেন রণবীর।

প্রথম দেখাতেই আলিয়াকে ভালবেসেছিলেন রণবীর।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৪ এপ্রিল ২০২২ ১৮:৩২
Share: Save:

একের পর এক প্রেম এসেছে তাঁর জীবনে। শুধু দীপিকা পাড়ুকোন বা ক্যাটরিনা কইফের মতো সুন্দরী এবং জনপ্রিয় নায়িকারা শুধু নন, আরও বহু নারীর সঙ্গেই ঘনিষ্ঠতায় জড়িয়েছেন রণবীর। তা হলে কীসের জোরে রণবীর কপূরের জীবনসঙ্গী হয়ে উঠতে পারলেন আলিয়া ভট্ট? লাখ টাকার এই প্রশ্নই আপাতত ঘুরপাক খাচ্ছে অসংখ্য অনুরাগীর মনে।

সাতপাক ঘোরা শেষ। পর্দায় নয়, 'রণলিয়া' এখন বাস্তবিকই 'মিস্টার অ্যান্ড মিসেস কপূর'। কোন জাদুবলে বিয়ের পিঁড়িতে পৌঁছল তাঁদের সম্পর্ক— সে রহস্য ফাঁস করে দিয়েছেন রণবীর-আলিয়ার ঘনিষ্ঠ বন্ধুরাই। তাঁদের মতে, আলিয়াই সেই প্রথম নারী, যাঁকে সম্পর্কের প্রথম দিন থেকেই বিয়ে করতে চেয়েছিলেন 'ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি'র বানি। ঠিক যেমনটা ঘটেছিল তাঁর বাবা-মা ঋষি কপূর-নীতু সিংহের ক্ষেত্রে। দীপিকা-ক্যাটরিনা কিংবা বাকিদের কখনও বিয়ের কথা বলেননি রণবীর।

বন্ধুরা বলছেন, আলিয়ার মিষ্টি স্বভাব এবং কপূর পরিবারের সঙ্গে তাঁর মন থেকে মেলামেশাই রয়েছে সম্পর্কের পরিণতি পাওয়ার নেপথ্যে। আর তাতেই প্রত্যেক দিন একটু একটু করে আরও গাঢ় হয়েছে রণবীর-আলিয়ার রসায়ন।

কী করে তা সম্ভব হল?

রণবীরের ঘনিষ্ঠ বৃত্তের কথায়, দীপিকা বা ক্যাটরিনার সঙ্গে কখনওই সে ভাবে মিশে যেতে পারেননি ঋষি-নীতু। তাঁরাও যেমন রণবীরের ওই বান্ধবীদের সামনে কথা হাতড়াতেন, তেমনই উল্টো দিক থেকেও সম্পর্ক তৈরির করার তেমন চেষ্টা ছিল না। সেখানে আলিয়া নাকি প্রথম দিন থেকেই একেবারে বাড়ির মেয়ের মতো মিশে গিয়েছিলেন রণবীরের পরিবারের সঙ্গে। ঋষি তাঁকে যেমন ভালবাসতেন, নীতুও ততটাই পছন্দ করেন মহেশ ভট্টের কন্যাকে। বুধবারও বিয়ের তারিখ ফাঁস করার সময়েই নীতু-ঋদ্ধিমাকে বলতে শোনা যায়, "আলিয়া ভারী মিষ্টি মেয়ে। একেবারে পুতুলের মতোই।"

বন্ধুদের মতে, শুধু ৃঋষি-নীতুই নন, আলিয়াও তাঁদের ভালবেসে আঁকড়ে ধরেছিলেন। বিচ্ছিন্ন দম্পতি মহেশ ভট্ট এবং সোনি রাজদানের মেয়ে ছেলেবেলা থেকেই বাবা-মা দু'জনকে একসঙ্গে পাননি। হয়তো সে কারণেই ঋষি-নীতুর সাহচর্য তাঁরও বাবা-মায়ের অভাব পূরণ করিয়ে দিয়েছিল। ঋষির মৃত্যুর পর থেকে নীতুকে আগলে রেখেছেন আলিয়াই। বন্ধুদের মতে, রণবীরের চেয়ে আলিয়াই বারে বারে ফোন করে নীতুর খোঁজখবর নেন সারা ক্ষণ।

'পুতুলের মতো' আলিয়া তাই কবেই যেন কপূরদের ঘরের মেয়ে হয়ে উঠেছিলেন। ভাবী বউমা হিসেবে তাঁকে চেয়েছিলেন ঋষি-নীতুও। সঞ্জয় লীলা ভন্সালীর অফিসে প্রথম দেখায় কি রণবীরও জীবনটা জুড়ে নিতে চেয়েছিলেন আলিয়ারই সঙ্গে?

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.