×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০২ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

স্ত্রী-র জন্মদিনে ‘দামি উপহার’ বিশাল ভরদ্বাজের

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৬ জানুয়ারি ২০২১ ২০:১৬
রেখা ও বিশাল ভরদ্বাজ।

রেখা ও বিশাল ভরদ্বাজ।

স্ত্রী নীতা অম্বানিকে ৪৪তম জন্মদিনে ৪৪০ কোটি টাকা দিয়ে বিলাসবহুল জেটপ্লেন উপহার দিয়েছিলেন মুকেশ অম্বানি। বলিউডের অভিনেতা আমির খান আবার কিরণ রাওকে উপহার দিয়েছিলেন এক টুকরো হলিউড। ক্যালিফোর্নিয়ার লস এঞ্জেলসের বেভারলি হিলসের বাড়ি। যেখানে পাড়া পড়শি জর্জ ক্লুনি, অ্যাঞ্জেলিনা জোলিরা। গৃহিণীদের তুষ্ট রাখতে দামী উপহার দেওয়াটা বলিউডের চালু ধারা। সেই ধারা বজায় রেখেই রাজ কুন্দ্রা দুবাইয়ে শিল্পার জন্য বুর্জ খলিফায় ফ্ল্যাট কেনেন। বিদ্যা বালনকে প্রযোজক স্বামী সিদ্ধার্থ কিনে দেন ৩০ কোটির সমুদ্রতটের বাড়ি। তবে এর মধ্যেও বলিউডে অনেকে আছেন যাঁরা অর্থমূল্যে ভালবাসার প্রমাণ দেওয়ায় বিশ্বাসী নন। বলিউডের প্রযোজক-পরিচালক, চিত্রনাট্যকার ও সুরকার বিশাল ভরদ্বাজ এই দলে পড়েন।

দু’দিন আগেই ছিল স্ত্রী রেখা ভরদ্বাজের জন্মদিন। জন্মদিনে বিশাল স্ত্রীকে যে উপহার দিয়েছেন, তা রেখার কথায়, তাঁর পাওয়া সবচেয়ে দামি উপহার।

সমাজ মাধ্যমে সেই ‘দামি’ উপহারের ছবি দিয়েছেন রেখা। একটি ফ্রেমে বাঁধানো পশ্চিমী গানের স্বরলিপি। শেয়ার করেছেন একটি ভিডিয়োও। তাতে পিয়ানোয় সুর বাজাতে দেখা যাচ্ছে বিশালকে। জন্মদিনে গৃহিণীর জন্য একটি নতুন সুর বানিয়ে উপহার দিয়েছেন তিনি।

Advertisement

স্ত্রী-র জন্য নতুন সুর! সঙ্গীত জগতে এমন নিদর্শন অবশ্য আমাদের হাতের কাছেই আছে। স্ত্রী সুলোচনা দেবীর মৃত্যুর পর নিজের সুরে দেবপ্রসাদ চক্রবর্তীর কথায় গান গেয়েছিলেন মান্না দে। অবশ্য রেখাকে বিশাল সুর উপহার দিয়েছেন তাঁর জন্মদিনেই। উপহার পেয়ে আপ্লুত রেখা সমাজ মাধ্যমে লিখেছেন, ‘জন্মদিনে পাওয়া আমার সবচেয়ে সুন্দর আর মিষ্টি উপহার। এই সুরটা আমার জন্য বানিয়ে, নিজে হাতে লিখেছে ও’।

প্রায় দিন সাতেক ধরেই পেনসিল-ইরেজার নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন বিশাল। ব্যপারটা ঠিক কী হচ্ছে, তখন বুঝতে পারেননি রেখা। বুঝলেন ২৪ জানুয়ারি রাত ১২টার সময়। মাঝরাতে ফ্রেমে বাঁধানো স্বরলিপি স্ত্রী-র হাতে তুলে দিলেন বিশাল। পিয়ানোয় বাজিয়ে শোনালেন নতুন সুর। স্বামীর উপহারে অভিভূত রেখা তাই বিশেষ মুহূর্ত শেয়ার করেছেন নেটাগরিকদের সঙ্গে।

পেশাদার সঙ্গীত শিল্পী রেখা। গান গেয়ে দু’বার ফিল্মফেয়ার পুরষ্কার, একটি জাতীয় পুরষ্কার পেয়েছেন। শুধু তাঁর জন্য সৃষ্টি করা বিশালের সুর স্বাভাবিকভাবেই মুগ্ধ করেছে রেখাকে। সমাজ মাধ্যমে মন খুলে প্রকাশ করেছেন সেই মুগ্ধতার কথাই।

Advertisement