আপাতত তিনি অন্দরমহলে। তিন মাসের ছোট্ট কিয়ার সঙ্গে দিন কাটছে তাঁর। মাঝে মাঝে রাত জাগছে কিয়া। আর মাকেও জাগিয়ে রাখছে সে।

মায়ের কাছে অনেক নাম তার।

‘‘আসলে, আমার ছেলে দ্রোণের সঙ্গে মিলিয়ে নাম রাখব ভেবেছিলাম। তারপর কিয়া রাখা হল। আমি যদিও মন, মোমো অনেক নামে ডাকি,’’আনন্দের সঙ্গে বললেন কনীনিকা।

মা হলে জীবনটাই বদলে যায়। সেটা বোঝাতে গিয়ে বললেন, ‘‘আমি এতদিন বাড়িতে।খুব একটা বেরোচ্ছি না, এটা তো ভাবাই যায় না। কিয়ার দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতেই দিন কেটে যায় আমার। এক এক সময় ওর এক এক রকম আচরণ। কেমন একটা ছবি তৈরি করে।’’

আরও পড়ুন-সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ফলো’ থেকে শুরু করে খুনের হুমকি! কী বললেন অরুণিমা?

 

কিন্তু এ বার বিভিন্ন জায়গায় তাঁকে দেখা যাচ্ছে। ‘‘গোত্র’ দেখতে গিয়েছিলাম। ভাল লেগেছে ছবিটা।’’ বললেন ‘মুখার্জিদার বউ’।

উনডোজের তরফ থেকে নতুন কোনও কাজের প্রস্তাব?

‘‘না, এখনও আসেনি। তবে উনডোজ আমার কাছে পরিবারের মতো। ওখানে কাজ করার অভিজ্ঞতাই আলাদা,’’আবেগ কনীনিকার গলায়।

 

অন্য সাজে কনি

এ বার কাজে ফিরতে চান তিনি। তাঁর বিশ্বাস,‘অন্দরমহল’বা ‘মুখার্জিদার বউ’-এ তাঁর পারফরম্যান্স মানুষ আজও মনে রেখেছে। সেই জায়গা থেকেই তিনি ইন্ডাস্ট্রিতে আবার কাজ পাবেন।

‘‘মা হওয়ার জন্য ছুটি নিয়েছিলাম। আমি জানি, চাইলেই সঙ্গে সঙ্গে কাজ পাব বিষয়টা তেমন নয়। সময় লাগবে। আমাকেও তো মেয়ের কাছ থেকে কাজের জন্য বেরিয়ে আসতে হবে।’’

আরও পড়ুন-ব্যাঙ্ক লুটবেন প্রিয়ঙ্কা! হুঁশিয়ারি মুম্বই পুলিশের

 

অভিনেত্রী মা হলে কাজ পেতে অসুবিধা হয়?

'নাহ। এখন আর সে সময় নেই। ঋতুদি আমার সবচেয়ে বড় ইনস্পিরেশন। দুই সন্তানের মা হয়েও কেমন একনাগাড়ে কাজ করে চলেছে ঋতুদি,’’বিস্ময় কনীনিকার কণ্ঠে।তাঁর সঙ্গে কথা বলতে বলতেই আবছা হয়ে ভেসে এল ছোট্ট কিয়ার গলা।

কিয়ার ছবি শেয়ার করেন না কেন?

‘‘ও থাক না কিছুদিন নিজের জগতে। ওর মতো করে বড় হোক। একবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দিলে আর রক্ষে নেই। রোজ ছবি দিতেই হবে। কিছু দিন যাক,’’সাফ জবাব ‘কনি’র।

জনপ্রিয়তা নয়, নিজের মাতৃত্বের আলোয় কিয়াকে বড় করতে চান কনীনিকা।