Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
Remix Trend

রিমিক্স বিতর্কে তোলপাড় বলিউড! কী বলছেন কলকাতার সঙ্গীতশিল্পীরা?

রিমিক্স গান ভাল না খারাপ! এই দ্বন্দ্ব চলে আসছে বহু বছর ধরে। কেউ পক্ষে, কেউ আবার বিপক্ষে। সম্প্রতি মুখ খুলেছেন এ আর রহমানও। এ প্রসঙ্গে কলকাতার শিল্পীদের কী বক্তব্য?

কী বললেন জয়, লগ্নজিতা, দেবজ্যোতিরা?

কী বললেন জয়, লগ্নজিতা, দেবজ্যোতিরা?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৭:০৫
Share: Save:

সঙ্গীতশিল্পী ফাল্গুনী পাঠকের গান রিমিক্স করেছেন নেহা কক্কর। সেখান থেকেই শুরু যাবতীয় যত বিতর্কের। দু’ভাগে বিভক্ত ইন্ডাস্ট্রি। কেউ রিমিক্সের পক্ষে, কেউ আবার বিপক্ষে। এরই মধ্যে রিমেক্স ট্রেন্ডের কড়া সমালোচনা করেছেন সঙ্গীত পরিচালক এ আর রহমানও। তিনি বলেছেন, “যত বেশি ওই গানগুলো শুনি, তত বেশি বিকৃত করা হয়েছে বলে মনে হয়। এর ফলে একজন সুরকারের উদ্দেশ্যই আদতে বিকৃত হচ্ছে! অনেকে বলে ‘আমরা নতুন করে সৃষ্টি করছি’, এই অধিকার তাঁদের কে দিয়েছেন?” এ প্রসঙ্গে কলকাতার শিল্পীমহল কী বলছে? খোঁজ নিল আনন্দবাজার অনলাইন।

Advertisement

দেবজ্যোতি মিশ্র

এই সময় কত দেশে কত রকম সমস্যা চলছে। একটা গানের রিমিক্স তৈরি করা হল কি হল না— এই বিষয়টা হাজারো সমস্যার মাঝে খুবই লঘু। মূল ভাবনাকে এক রেখে কেউ যদি অন্য রকম ভাবে গান গাইতে পারে, ভালই তো। আমার গান যদি কেউ রিমিক্স করে, আমার ভাল লাগবে। মানুষের ভাল লাগা নিয়ে কথা। একটা গানের রিমিক্স হয় তার জনপ্রিয়তার জন্য। এখন সেই জনপ্রিয় গান কেউ নিয়ে এলে তা নিয়ে আসবে অন্য পরিসরে। তা শুনে মানুষই তার বিচার করবে।

লগ্নজিতা চক্রবর্তী

Advertisement

আমি যখন শ্রোতা ছিলাম, তখনও রিমিক্স গান ভাল লাগত না। আর পেশাদার শিল্পী হওয়ার পর এখনও ভাল লাগে না। গান তৈরির পরিসর এতটাই বড়, যা তৈরি হয়ে গিয়েছে তাকে নতুন করে তৈরির কী মানে, তার উত্তর সত্যিই আমি খুঁজে পাই না। যে গান জনপ্রিয় সেই গানেরই রিমিক্স করা হয়। সে ক্ষেত্রে আমার খালি মনে হয়, অন্য শিল্পীর জনপ্রিয়তার উপর নির্ভর করে জনপ্রিয় হওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। সেটা খুবই অনৈতিক আমার মতে।

জয় সরকার

যদিও নেহার রিমিক্স গানটা আমার শোনা হয়নি। তবে, এ আর রহমানের বক্তব্য আমি শুনেছি। তবে এ কথা সত্যি, একজন সঙ্গীতশিল্পী যখন একটি গান সৃষ্টি করছেন তাতে তাঁর নিজস্ব ভাবনাচিন্তা থাকে। সেটা সম্পূর্ণ তাঁর মস্তিষ্কপ্রসূত। সেটা যদি বিকৃত হয়ে যায়, মূল গানের ভাব থেকে সরে যায়, সেটা কখনও উচিত নয়। মূল ভাবনা এক রেখে সচেতন ভাবে যদি নতুন আঙ্গিকে কেউ পুরনো গানকে নতুন ভাবে তুলে ধরতে পারে, তা হলে ঠিক আছে।

রণজয় ভট্টাচার্য

অনেক বছর ধরেই রিমিক্সের প্রচলন। এই চল আজকের নয়। তবে কে কী ভাবে তৈরি করছে, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। পুরনো গানের স্বাদ বজায় রেখে নতুন ভাবে তুলে ধরাই যায়। কিন্তু অনেক সময় এমন ভাবে রিমিক্স করা হয়, যা গানের আসল গন্ধটাই নষ্ট করে দেয়। সেটা ঠিক নয়। তবে আমার ক্ষেত্রে পরিস্থিতিতে না পড়লে আমি নিজের গান তৈরি করতেই পছন্দ করব।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.