Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩
Abhishek Bachchan

অভিষেক-করিশ্মার বিচ্ছেদের প্রায় ২০ বছর পর সম্পর্ক ভাঙার আসল কারণ খোলসা করলেন পরিচালক

করিশ্মা কপূর-অভিষেক বচ্চনের প্রেম। সেখানে থেকে কথাবার্তা এগিয়ে যায় বিয়ে অবধি। কিন্তু আচমকাই ভেঙে যায় সেই সম্পর্ক। দুই তারকার বিচ্ছেদের কারণ এত দিন পরেও সে ভাবে জানা যায়নি।

অভিষেক-করিশ্মার বিচ্ছেদের কারণ।

অভিষেক-করিশ্মার বিচ্ছেদের কারণ। ফাইল-চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
মুম্বই শেষ আপডেট: ২২ নভেম্বর ২০২২ ১১:১৭
Share: Save:

দু’জনের মধ্যে গভীর প্রেম। দুই পরিবারের মধ্যেও কথাবার্তা সব পাকা। তা-ও আবার যে সে পরিবার নয়, বলিউডের প্রথম সারির দুই খানদান। এক দিকে বচ্চনরা, অন্য দিকে কপূররা। বলিউড যে সব সম্পর্কের বিচ্ছেদ দেখেছে তার মধ্যে অন্যতম অভিষেক বচ্চন ও করিশ্মা কপূরের ‘ব্রেকআপ’। বাগ্‌দান হয়ে গিয়েছিল দুই তারকার। কিন্তু ছাদনাতলা পর্যন্ত যাওয়ার আগেই অভিষেকের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙেন করিশ্মা। সেই ঘটনার দু’দশক পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু কী কারণে ভেঙে গেল এই সম্পর্ক, তা এখনও পরিষ্কার নয়। প্রায় বিশ বছর পর হঠাৎ জানা গেল সেই কারণ।

Advertisement

সালটা ২০০০। মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে তত ক্ষণে কানাঘুষো শুরু হয়ে গিয়েছে অভিষেক-করিশ্মার প্রেমের খবরে। এই সম্পর্কের শুরুটা হয় সিনেমার সেটে। অভিষেক-করিশ্মা জুটিতে কাজ করেছিলেন একটি মাত্র ছবিতে। নাম ‘হাঁ ম্যায়নে ভি প্যায়ার কিয়া হ্যায়’। এই ছবির সেটে শুরু এই দুই তারকার প্রেমকাহিনি। ২০০২ সালে মুক্তি পায় ছবিটি। তার আগে ভাঙন ধরে সম্পর্কে। সেই সময় সদ্য বলিউডে পা দিয়েছেন অভিষেক। করিশ্মা তত দিনে নামকরা তারকা। বরং অভিষেককে কেরিয়ারের শুরুর দিকে বেশ সমালোচনা শুনতে হয়েছিল। কিন্তু সে সব আটকায়নি দু’জনকে। কাজ করতে করতেই প্রেম পড়ে যান দু’জনে। এবং তড়িঘড়ি আংটিবদলও সেরে ফেলেন তাঁরা। বলিউডের দুই প্রভাবশালী পরিবারের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি হবে বলেই আশা করেছিলেন সকলে। জয়া বচ্চন সেই বছর অভিষেকের জন্মদিনে সাংবাদিকদের সামনে করিশ্মাকে নিজের ভাবী পুত্রবধূ বলেই স্বীকারও করে নেন। কিন্তু তার পর দিন কয়েকের মধ্যে শোনা যায় সম্পর্ক ভেঙেছে অভিষেক-করিশ্মার। কেন, সেই কারণই জানালেন দুই তারকার একমাত্র ছবির পরিচালক সুনীল দর্শন।

তাঁর কথায়, ‘‘করিশ্মা ও অভিষেকের সম্পর্ক চোখের সামনে গড়ে উঠতে দেখেছি। আমরা ওঁদের আংটিবদল অনুষ্ঠানেও গিয়েছিলাম। কিন্তু একটা জিনিস সব সময় মনে হত। ওঁরা একে অপরের জন্য নয়। ছোটখাটো বিষয়ে দু’জনের মধ্যে মতবিরোধ লেগেই থাকত।’’ সুনীল আরও বলেন, ‘‘করিশ্মা-করিনা দু’জনেই খুব ভাল । অভিষেকও মিষ্টি মানুষ। কিন্তু এক অপরের জন্য ঠিক ছিলেন না, নিয়তির অন্য ইচ্ছে ছিল।’’

২০০২ সালে ‘হাঁ ম্যায়নে ভি প্যায়ার কিয়া হ্যায়’ ছবি মুক্তির এক বছর পর দিল্লির শিল্পপতি সঞ্জয় কপূরকে বিয়ে করেন করিশ্মা। তাঁদের এক ছেলে, এক মেয়ে রয়েছে। যদিও বিয়ের কয়েক বছরের মাথায় স্বামী সঞ্জয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়ে যায় করিশ্মার। আপাতত তিনি একাই জীবন উপভোগ করছেন। অন্য দিকে ঐশ্বর্যা ও মেয়ে আরাধ্যাকে নিয়ে সুখে সংসার করছেন অভিষেক।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.