Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০১ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

Buffet: শুরুর কবাব থেকে শেষ পাতের মিষ্টি, ছাড়তে চান না কিছুই? রইল বিয়েবাড়ির বুফে বিজয়ের সহজ টোটকা

কয়েকটি সহজ টোটকা মাথায় রাখলেই বীর বিক্রমে বিয়েবাড়ির বুফে বিজয় আর অসাধ্য রইবে না।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৯ ডিসেম্বর ২০২১ ১৫:৪৮
Save
Something isn't right! Please refresh.
বিয়ে বাড়ির ভোজ।

বিয়ে বাড়ির ভোজ।
ছবি: সংগৃহীত

Popup Close

কব্জি ডুবিয়ে খাওয়াদাওয়া না হলে কি আর বাঙালির বিয়েবাড়ি সার্থক হয়? অথচ পদ যতই লোভনীয় হোক না কেন, উদরের বিদ্রোহের আশঙ্কায় অনেকেই আজকাল সামলে রাখেন জিহ্বা। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন কয়েকটি সহজ টোটকা মাথায় রাখলেই বীর বিক্রমে বুফে বিজয় আর অসাধ্য থাকবে না। জানুন নিমন্ত্রণ রক্ষায় উদরের পূর্তি আর ফুর্তি দুই-ই সম্ভব কোন উপায়ে—

Advertisement
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।
ছবি: সংগৃহীত


১। ভরপেট খেতে চাইলে খাওয়াদাওয়ার প্রাত্যহিক অভ্যাস বজায় রাখতে হবে নিমন্ত্রণের দিনেও। ঠিক সময়ে সারুন প্রাতরাশ ও মধ্যাহ্নভোজন। খেয়াল রাখুন বিয়ের খাওয়াদাওয়ার আগে ৪ ঘণ্টার বেশি যেন পেট খালি না থাকে। দীর্ঘক্ষণ পেট খালি থাকার পর ভারী খাবার খেতে গেলেই ঘুলিয়ে উঠবে গা, মাথায় উঠবে খাওয়াদাওয়া।
২। সারা দিন যথেষ্ট পরিমাণে জল খান। শরীরে যেন জলের ঘাটতি না থাকে। জলের ঘাটতি আপাত ভাবে বোঝা না গেলেও খেতে গিয়ে যদি বার বার জল খাওয়ার প্রয়োজন হয়, তা হলেই বুঝবেন সেই দিনের মতো খাওয়া দাওয়া লাটে উঠল।

৩। মূল খাওয়াদাওয়ার আগে পানীয় নৈব নৈব চ। খাওয়ার আগে চা-কফিই হোক বা ঠান্ডা পানীয়, খাওয়া মানেই খিদে নষ্ট হয়ে যাওয়া। স্যুপ খেতে চাইলে তা খাওয়ার পর অন্তত মিনিট কুড়ি প্লেট মুখো হবেন না। ঠান্ডা পানীয় খেতে পছন্দ করলে তা খান খাওয়াদাওয়া হয়ে যাওয়ার পর।
৪। যদি বুফেতে যান, তা হলে একসঙ্গে একাধিক খাবার মেশাবেন না। এক থালাতে নিতে গিয়ে টক জাতীয় খাবার আর দুগ্ধজাত খাবার মিশিয়ে ফেলার মতো পাপ জগতে আর দ্বিতীয়টি নেই। ধৈর্য ধরে একটি একটি পদ চেখে দেখুন। সবগুলি চেখে দেখা হয়ে গেলে পছন্দের তিন থেকে চারটি পদে মনোনিবেশ করুন।
৫। উপেক্ষা করুন গ্রেভি ও ঝোলের যৌথ ষড়যন্ত্র। তা সে শাহি পনিরের সঙ্গেই আসুক বা ডাল মাখানির বেশেই আসুক। পেটের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করতে এদের জুড়ি মেলা ভার।
তবে মনে রাখবেন, প্রত্যেকের শরীরের নিজস্ব ব্যাকরণ আলাদা। কাজেই এক ফর্মুলাতে উদরপূর্তির মোক্ষলাভ হবেই এ কথা নিশ্চিত ভাবে বলা যায় না। অনেকেই ভাবেন দু’বছর আগে যে পদগুলি কব্জি ডুবিয়ে খেতে পেরেছেন, এখনও হয়তো সেগুলি খেতে অসুবিধা হবে না। কিন্তু মনে রাখবেন শরীরের ক্ষমতা বদলে যেতে সময় লাগে না। কাজেই স্বাস্থ্যের ঝুঁকি নিয়ে কিছু না করাই ভাল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement