Advertisement
২৯ জানুয়ারি ২০২৩
Celine Dion

টাইটানিক ছবির গায়িকা চিরতরে হারাতে পারেন সুর, দুরারোগ্য অসুখে আক্রান্ত সেলিন ডিয়ন

বিরল রোগে আক্রান্ত কানাডার সঙ্গীতশিল্পী সেলিন ডিয়ন। বৃহস্পতিবার শিল্পী জানান, একটি বিরল স্নায়ুরোগে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি।

‘স্টিফ পারসন সিনড্রোম’ নামের একটি রোগে আক্রান্ত সেলিন ডিয়ন।

‘স্টিফ পারসন সিনড্রোম’ নামের একটি রোগে আক্রান্ত সেলিন ডিয়ন। ছবি: সংগৃহীত

সংবাদ সংস্থা
নিউ ইয়র্ক শেষ আপডেট: ০৯ ডিসেম্বর ২০২২ ১১:৫০
Share: Save:

নব্বইয়ের দশকে টাইটানিক ছবিতে গাওয়া ‘মাই হার্ট উইল গো অন’ গানটি এনে দেয় বিশ্বজোড়া খ্যাতি। তিনি সেলিন ডিয়ন। অথচ যে সঙ্গীতে তাঁর পরিচিতি, থেমে যেতে পারে সেই গানই। কারণ একটি বিরল স্নায়ুরোগে আক্রান্ত হয়েছেন তিনি। ‘স্টিফ পারসন সিনড্রোম’ নামের এক রোগ ধরা পড়েছে তাঁর। ৫৪ বছর বয়সি সঙ্গীতশিল্পী বৃহস্পতিবার একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট দেন। সেখানেই সেলিন জানান, ‘স্টিফ পারসন সিনড্রোম’ নামের একটি রোগ বাসা বেঁধেছে তাঁর শরীরে। কী এই রোগ?

Advertisement

‘স্টিফ পারসন সিনড্রোম’ বা ‘এসপিএস’ একটি ‘অটো ইমিউন’ রোগ। ঠিক কেন এই রোগ হয়, তা নিশ্চিত করে বলা না গেলেও গবেষকদের ধারণা, দেহের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা কোনও কারণে দেহেরই কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রকে আক্রমণ করলে এই সমস্যা তৈরি হয়। সাধারণত মধ্যবয়স্ক মানুষরা এই রোগে আক্রান্ত হন। যে হেতু কেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্র আক্রান্ত হয়, তাই এই রোগে দেহের বিভিন্ন পেশি অসাড় হয়ে আসে। হাঁটাচলা কিংবা কথা বলার ক্ষমতাও হারিয়ে ফেলতে পারেন রোগী।

শিল্পী নিজেও জানিয়েছেন, এই রোগে মূর্তির মতো স্থবির হয়ে যায় মানুষ। কিছুটা ফিট লাগার মতো। কথা বলা বা হাঁটাচলা বন্ধ হয়ে আসে। শিল্পীর দাবি, রোগটি এতই বিরল যে, ১০ লক্ষ মানুষের মধ্যে ১ জন এই রোগে আক্রান্ত হন। রোগের ধাক্কায় গান গাওয়াই কঠিন হয়ে উঠছে তাঁর পক্ষে।

৩ সন্তানের জননী সেলিন চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রথম বার নিজের স্বাস্থ্যগত সমস্যার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। ৯ মার্চ থেকে ২২ এপ্রিল পর্যন্ত তাঁর উত্তর আমেরিকার বিভিন্ন স্থানে সফর করার কথা ছিল। কিন্তু শারীরিক অসুস্থতার কারণে বাতিল করতে হয় সেগুলি। সেলিন জানিয়েছেন, বেশ কিছু দিন ধরেই খিঁচুনির সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। চিকিৎসকের আশঙ্কা, এই রোগটি থেকেই দেখা দিচ্ছে খিঁচুনি।

Advertisement
৩ সন্তানের জননী সেলিন চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রথম বার নিজের স্বাস্থ্যগত সমস্যার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

৩ সন্তানের জননী সেলিন চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রথম বার নিজের স্বাস্থ্যগত সমস্যার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। ছবি: সংগৃহীত

ইনস্টাগ্রামে নিজের অসুস্থতার কথা বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন সেলিন। জানান, এখনও পর্যন্ত কোনও নিরাময় নেই এই রোগের। কেবল উপসর্গগুলি কমানোর চেষ্টা করা যেতে পারে। আর তার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা করছেন তাঁর চিকিৎসকেরা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.