Advertisement
০৬ অক্টোবর ২০২২
nightmare

Bad Dream: প্রায়ই ঘুমের মধ্যে দুঃস্বপ্ন দেখে জেগে ওঠেন? কেন এমনটা হয়

স্বপ্ন দেখতে কার না ভাল লাগে? কিন্তু সেই স্বপ্ন যখন দুঃস্বপ্ন হয়ে দাঁড়ায়, তখন তাঁর চেয়ে ভয়ঙ্কর বোধহয় আর কিছু হতে পারে না।

কেন দুঃস্বপ্ন দেখি আমরা?

কেন দুঃস্বপ্ন দেখি আমরা?

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৩ অগস্ট ২০২২ ১০:০৬
Share: Save:

ঘুমের মধ্যে কি কখনও ভয় পেয়ে জেগে উঠেছেন? কিংবা এমন কোনও ভয়ঙ্কর স্বপ্ন দেখেছেন যা আপনার ঘাম ছুটিয়ে দিয়েছে? বা ঘুম থেকে জেগে ওঠার পর নিজেও কিছু ক্ষণের জন্য বুঝতে পারেননি যে, আপনি বাস্তবে আছেন কি না!

স্বপ্ন দেখতে কার না ভাল লাগে? কিন্তু সেই স্বপ্ন যখন দুঃস্বপ্ন হয়ে দাঁড়ায়, তখন তাঁর চেয়ে ভয়ঙ্কর বোধহয় আর কিছু হতে পারে না। বেশ সময় লেগে যায় নিজের চেতনায় ফিরে আসতে। এই দুঃস্বপ্ন আবার বেশ অনেক রকমের হয়।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, সারা দিনের ক্লান্তি, চিন্তা আমাদের উপর এমন একটা প্রভাব ফেলে, যা ঘুমের মধ্যে দুঃস্বপ্নে প্রতিফলিত হয়ে ওঠে। এই দুঃস্বপ্নের মোকাবিলা করা মুখের কথা নয়। ভাল স্বপ্নগুলি আমাদের তেমন মনে না থাকলেও দুঃস্বপ্নগুলি যেন মনে গেঁথে যায়। কেন এমনটা হয় জানেন? তুলানে ইউনিভার্সিটি স্কুল অব সায়েন্স ইঞ্জিনিয়ারিং এবং টুফস ইউনিভার্সিটি স্কুল অব মেডিসিনের এর গবেষকরা এর উত্তর খুঁজে পেয়েছেন।

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

গবেষকরা দেখেছেন যে, স্ট্রেস নিউরোট্রান্সমিটার নরপাইনফ্রাইন, যা নরড্রেনালাইন নামেও পরিচিত, অ্যামিগডালায় প্রতিরোধমূলক স্নায়ুগুলিকে উদ্দীপিত করে মস্তিষ্কে ভয়ের স্মৃতিগুলিকে জাগিয়ে তোলে। যা মস্তিষ্কে ভয়ের বিষ্ফোরণ ঘটায়। ঘুমের সময় মস্তিষ্ক শান্ত অবস্থায় থাকে সেই সময় ভয়ের স্মৃতিগুলি হঠাৎ জেগে উঠলে আমরা ঘুমের মধ্যে শিহরিত হই। আর বারে বারে এই স্মৃতিগুলি আমাদের স্নায়ুগুলিকে উদ্দীপিত করে। তাই দুঃস্বপ্ন বেশ দীর্ঘস্থায়ী হয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.