Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

মধ্যপ্রদেশে ই-টেন্ডার প্রক্রিয়ায় হাজার কোটির দুর্নীতি, ইডি-র জালে দুই ব্যবসায়ী

ধৃতদের বিরুদ্ধে ‘মধ্যপ্রদেশ স্টেট ইলেকট্রনিক্স ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন’-এর ই-টেন্ডার প্রক্রিয়ায় কারচুপির অভিযোগ রয়েছে।

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল ২১ জানুয়ারি ২০২১ ১৪:২৪
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

ব্যপম কাণ্ডের পর ফের আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগ মধ্যপ্রদেশ সরকারের অন্দরে। মধ্যপ্রদেশ সরকারের পরিকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত বরাতের ই-টেন্ডারিংয়ের ক্ষেত্রে দুর্নীতির পরিমাণ প্রায় ১,০৩০ কোটি টাকা বলে সরকারি সূত্রের খবর। ঘটনা জড়িত সন্দেহে ইতিমধ্যেই দু’জনকে গ্রেফতার করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)।
ইডি সূত্রের খবর, ধৃত দুই ব্যক্তি পরিকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত ব্যবসায় যুক্ত। মধ্যপ্রদেশ সরকারের ই-টেন্ডার কমর্সূচি দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত তিন বেসরকারি সংস্থার কিছু কর্মীর সঙ্গে তাদের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল বলে অভিযোগ। প্রথম জন হায়দরাবাদের মন্টেনা কনস্ট্রাকশনের চেয়ারম্যান শ্রীনিবাস রাজু মন্টেনা। দ্বিতীয় জন তার সহযোগী তথা ভোপালের অরণী ইনফ্রার মালির আদিত্য ত্রিপাঠী।
ধৃতদের বিরুদ্ধে কিছু সরকারি অফিসার এবং ‘মধ্যপ্রদেশ স্টেট ইলেকট্রনিক্স ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন’-এর ই-টেন্ডার কর্মসূচি পরিচালনার দায়িত্বপ্রাপ্ত বেসরকারি সংস্থাগুলির কর্মীদের কাজে লাগিয়ে পরিকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পগুলির বরাত পাওয়ার প্রক্রিয়ায় কারচুপির অভিযোগ এনেছে ইডি। মন্টেনা কনস্ট্রাকশনের পাশাপাশি রাজুর আরেকটি সংস্থা ম্যাক্স মন্টেনা এবং আদিত্যের অরণী ইনফ্রাকে ‘দুর্নীতির সুবিধাভোগী’ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে ২০১৯ সালের এপ্রিলে ইডি-র তরফে দায়ের করা মামলায়।
ধৃত রাজু এবং ত্রিপাঠীকে বৃহস্পতিবার হায়দরাবাদের একটি আদালতে তোলা হলে তাদের ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। এফআইআর-এ অভিযোগ করা হয়েছে, ই-টেন্ডারের ‘লগ ইন’ প্রক্রিয়া দেখভালের দায়িত্বে থাকা অসমো আইটি সলিউশলনের দুই কর্তা, বিনয় চৌধুরী ও বরুণ চতুর্বেদীর সহায়তায় বেআইনি ভাবে ই-টেন্ডার প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে বরাত বণ্টনের বন্দোবস্ত করেছিল রাজু এবং আদিত্য।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement