Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৩ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

আবার গণধর্ষণ, তোপের মুখে অখিলেশ

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ০১ অগস্ট ২০১৬ ০৩:৪৩

দেশের রাজধানী থেকে জায়গাটার দূরত্ব কমবেশি ৬৫ কিলোমিটার। সবচেয়ে কাছের পুলিশ ফাঁড়ি মাত্র শ’খানেক মিটার দূরে। তার মধ্যেই রাস্তার ধারের মাঠে তিন ঘণ্টা ধরে মা-মেয়েকে গণধর্ষণ করে লুঠপাট চালিয়ে গা-ঢাকা দিল পাঁচ দুষ্কৃতী! উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহরের কাছে ৯১ নম্বর জাতীয় সড়কের উপর শুক্রবার রাতের এই ঘটনায় তুমুল সমালোচনার মুখে নড়েচড়ে বসেছে অখিলেশ যাদবের সরকার। একাধিক পুলিশ কর্তাকে সাসপেন্ড করার পাশাপাশি তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের চিহ্নিত করেছেন নির্যাতিতা মা ও মেয়ে।

‘এনএইচ ১০’ সিনেমায় জমজমাট পার্টি ছেড়ে অফিসে যেতে গিয়ে রাস্তায় হামলার মুখে পড়েছিলেন নায়িকা মীরারূপী অনুষ্কা শর্মা। সিনেমার পর্দায় উত্তর ভারতের সড়কে ওত পেতে থাকা এমন আরও অনেক বিপদের মোকাবিলা করতে হয়েছিল নায়িকাকে। বুলন্দশহরের ঘটনা দেখিয়ে দিল, বাস্তব অনেক বেশি নির্মম।

কী হয়েছিল শুক্রবার রাতে? পুলিশ সূত্রের খবর, ৯১ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে শাহজাহানপুর যাচ্ছিল নয়ডার একটি পরিবার। বুলন্দশহর বাইপাসের কাছে হঠাৎ গাড়িতে ধাতব কিছু এসে লাগে। হতচকিত চালক গাড়িটি থামাতেই সেটি ঘিরে ধরে জনা পাঁচেক দুষ্কৃতী। আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে আরোহীদের টাকা, মোবাইল, গয়না কেড়ে নেয়।

Advertisement

ডাকাতি হচ্ছে ভেবে গাড়ির আতঙ্কিত আরোহীরা চুপ করেই ছিলেন। হঠাৎ ডাকাতদের চোখ পড়ে গাড়িতে বসা ৩৫ বছরের এক মহিলা ও তাঁর ১৪ বছরের মেয়ের দিকে। মুহূর্তে দুষ্কৃতীরা সবাইকে পাশের মাঠে নিয়ে যায়। পুরুষদের গাছে বেঁধে তিন ঘণ্টা ধরে মা-মেয়েকে ধর্ষণ করে উধাও হয় তারা।

শনিবার সকাল থেকে ঘটনাটি নিয়ে হইচই শুরু হয়। উত্তরপ্রদেশে আগামি বছর ভোট। অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী সরকারের আমলে রাজ্যে ‘জঙ্গলরাজ’ ফিরেছে, এই অভিযোগ নিয়ে মাঠে নামেন বিএসপি নেত্রী মায়াবতী থেকে বিজেপি নেতা মহেশ শর্মা।

সমালোচনার মুখে সক্রিয় হয় সরকার। কোতোয়ালি দেহাত থানার ওসি রামসেনকে দ্রুত সরিয়ে দেয় প্রশাসন। সাসপেন্ড করা হয় বুলন্দশহরের এসএসপি বৈভব কৃষ্ণন, পুলিশ সুপার রামমোহন সিংহ, সার্কেল অফিসার হিমাংশু গৌরব-সহ একাধিক কর্তাকে। রাজ্য প্রশাসনের তরফে আশ্বাস দেওয়া হয়েছে, দ্রুত অপরাধীদের গ্রেফতার করা হবে।

তবে এখন প্রশাসন যতই তৎপর হোক, সড়কে নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন কিন্তু কমছে না।

আরও পড়ুন

Advertisement