Advertisement
০৩ ডিসেম্বর ২০২২
Ankita Bhandari

যৌনতায় লিপ্ত হতে চাপ অঙ্কিতাকে! লক্ষ্য ছিল অতিথিদের খুশি করা, দাবি উত্তরাখণ্ডের পুলিশ প্রধানের

উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিংহ ধামি শনিবারই অঙ্কিতার বাবার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। মুখ্যমন্ত্রী সমস্ত সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন। জানিয়েছেন, মেয়ের খুনীর কঠোর শাস্তি হবে।

অতিথিদের মনোরঞ্জনে চাপ দেওয়া হত অঙ্কিতাকে!

অতিথিদের মনোরঞ্জনে চাপ দেওয়া হত অঙ্কিতাকে! ফাইল ছবি।

সংবাদ সংস্থা
দেহরাদূন শেষ আপডেট: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২২:৪৮
Share: Save:

১৯ বছর বয়সি রিসেপশনিস্ট অঙ্কিতা ভান্ডারিকে রিসর্টের অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হতে চাপ দিতেন মালিক! উত্তরাখণ্ডের ডিরেক্টর জেনারেল অশোক কুমার জানিয়েছেন, এক বন্ধুর সঙ্গে অঙ্কিতার বার্তা চালাচালি থেকে এই কথা জানা গিয়েছে।

Advertisement

এর আগে অঙ্কিতার এক ফেসবুক বন্ধুও দাবি করেছিলেন, রিসর্টে আসা অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হতে আপত্তি করায় অঙ্কিতাকে খুন করা হয়। একই দাবি করেছিল অঙ্কিতার পরিবারও। এ বার পুলিশ তদন্তেও কার্যত একই কথা উঠে এল। ডিজি বলেন, ‘‘অঙ্কিতার সঙ্গে তাঁর এক বন্ধুর কথোপকথন আমরা পেয়েছি। সেখানে অঙ্কিতা ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, তাঁকে রিসর্টে আসা অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হতে চাপ দিতেন রিসর্টের মালিক। আমরা এই কথোপকথনের সত্যতা খতিয়ে দেখছি।’’ রিসর্টের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের সঙ্গে কথা বলেও পুলিশ জানতে পেরেছে ১৮ সেপ্টেম্বর, যে দিন অঙ্কিতা খুন হন, সে দিন তিনি কাঁদতে কাঁদতে কারও সঙ্গে কথা বলছিলেন। তাহলে কি অঙ্কিতাকে অতিথিদের মনোরঞ্জনের জন্য যৌনতায় লিপ্ত হওয়ার চাপ দেওয়ার কারণেই তিনি ভেঙে পড়েছিলেন? পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, তেমনটাই হয়েছিল। রিসর্টের মালিক পুলকিত, যাঁর বাবা উত্তরাখণ্ডের বিজেপির নেতা, তাঁর সঙ্গেও অঙ্কিতার কথা কাটাকাটির খবর জানতে পেরেছে পুলিশ।

শনিবারই উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিংহ ধামি অঙ্কিতার বাবার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। অঙ্কিতার বাবাকে মুখ্যমন্ত্রী সমস্ত সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন এবং জানিয়েছেন, মেয়ের খুনীকে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

১৯ বছরের অঙ্কিতা বিজেপি নেতার ছেলে বেসরকারি রিসর্টে রিসেপশনিস্টের চাকরি করতেন। অভিযোগ, বিজেপি নেতার ছেলে পুলকিত রিসর্টের আরও দুই কর্মীর সহায়তায় অঙ্কিতাকে চাপ দিয়ে রিসর্টে বেড়াতে আসা অতিথিদের সঙ্গে যৌনতায় লিপ্ত হতে চাপ দিতেন। রাজি না হওয়ায় তাঁকে খুন করা হয়। এই ঘটনা নিয়ে ইতিমধ্যেই উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে উত্তরাখণ্ড।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.