Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

ব্রহ্মপুত্রের উপর চিনের জলাধার তৈরির পরিকল্পনা চূড়ান্ত, ফের অশান্তির ইঙ্গিত

সোমবার তিব্বতের কমিউনিস্ট পার্টি-র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই প্রকল্পের কাজ চিনের দ্রুত শুরু করা উচিত। তারপর থেকেই নতুন করে এই নিয়ে আলোচনা শুর

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ০৮ মার্চ ২০২১ ১৫:২৯
ব্রহ্মপুত্র নদ।

ব্রহ্মপুত্র নদ।

অনেকদিন ধরেই আলোচনা চলছে, ব্রহ্মপুত্র নদের উচ্চগতিতে জলাধার তৈরি করে বিদ্যুৎ উৎপাদন করবে চিন। একদিকে দু’দেশের সেনা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া যখন চলছে, তখনই ফের আলোচনায় উঠে এল জলাধার তৈরির প্রসঙ্গ। কারণ এতদিন আলোচনা স্তরে থাকা এই জলাধার প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শুরু করতে চলেছে চিন। সোমবার তিব্বতের কমিউনিস্ট পার্টি-র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এই প্রকল্পের কাজ চিনের দ্রুত শুরু করা উচিত। তারপর থেকেই নতুন করে এই নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে।

ব্রহ্মপুত্র নদের মোট গতিপথ প্রায় ২ হাজার ৯০০ কিলোমিটার। ভারত, তিব্বত ও বাংলাদেশের মধ্যে দিয়ে এটি প্রবাহিত হয়েছে। চিনের পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় গত সপ্তাহেই উল্লেখ করা হয় ২০২১ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে এটি তৈরি করে ফেলা হবে। চিনের সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, সে দেশ নদের উপর প্রায় ৬০ গিগাওয়াটের বিদ্যুৎ প্রকল্প তৈরি করার ক্ষমতা রাখে। এই প্রকল্প সম্পূর্ণ হলে পৃথিবীর বৃহত্তম জলবিদ্যুৎ প্রকল্পের তকমা পাবে। এর আগে চিনেরই ২২.৫ গিগাওয়াটের একটি জলাধার এই তালিকায় সবার উপরে ছিল।

Advertisement

চিনের এই প্রকল্প রূপায়ণের বিষয়ে আগাগোড়াই আপত্তি জানিয়ে আসছে ভারত। কারণ, প্রথম থেকেই ভারত জানায়, নদের উচ্চ গতিপথে জলাধার বানালে ভারতে জলসংকট তৈরি হতে পারে। হড়পা বান থেকে বর্ষায় বন্যার মতো সমস্যাও দেখা যেতে পারে ভারতে। সেই কারণেই ভারত বারবার এই জলাধার নির্মাণের প্রশ্নে চিনের বিরোধিতা করে এসেছে। যদিও গত বছর ডিসেম্বরে চিনের পাল্টা ভারতও জলাধার নির্মাণের কথা জানায়। বলা হয়, সামঞ্জস্য বজায় রাখতেই ভারতের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদিও সেই প্রকল্প কতটা বাস্তবায়িত হবে, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

আরও পড়ুন

Advertisement