×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩১ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

পরিবারের ৪ সদস্যকে দিল্লি পাঠাতে ১৮০ আসনের বিমান ভাড়া ব্যবসায়ীর

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল ২৮ মে ২০২০ ১৮:৩৭
প্রতীকী চিত্র।

প্রতীকী চিত্র।

করোনার অতিমারির মধ্যে কখনও পরিযায়ী শ্রমিকদের কয়েকশো কিলোমিটার হেঁটে বা সাইকেলে করে বাড়ি ফিরতে হচ্ছে। সোনু সুদের মতো মানুষ যেমন ভিন রাজ্যে আটকে পড়া হাজার হাজার লোকজনকে বাড়ি পাঠানোর উদ্যোগ নিচ্ছেন। সেখানে মধ্যপ্রদেশের ভোপালের এক ব্যবসায়ীর এমন খবর সামনে এল, যা শুনলে অবাক হয়ে যেতে পারেন। ওই ব্যবসায়ী তাঁর পরিবারের চার সদস্যের জন্য গোটা একটি বিমান ভাড়া করে ফেললেন।

ওই ব্যবসায়ীর নাম প্রকাশ করা না হলেও লিকার ব্যারন হিসেবে পরিচয় পাওয়া গিয়েছে। লকডাউনের কারণে গত দু’ মাস ধরে তাঁর মেয়ে, মেয়ের দুই সন্তান আটকে পড়েছেন ভোপালে। সোমবার থেকে উড়ান চালু হয়েছে প্রায় গোটা দেশে। তাই প্রথম দিনেই ভোপাল থেকে মেয়ে, মেয়ের দুই সন্তান ও তাঁদের দেখাশোনার জন্য এক মহিলাকে দিল্লি পাঠানোর ব্যবস্থা করেন ওই ব্যবসায়ী।

ব্যবস্থা মানে, করোনার ছোঁয়া থেকে বাঁচিয়ে পরিবারের সদস্যদের ভোপাল থেকে দিল্লি পাঠানোর জন্য গোটা একটি বিমানের ব্যবস্থা করেন ওই ব্যবসায়ী। ১৮০ আসনের একটি গোটা ‘এ৩২০’ বিমান ভাড়া করে নেন ওই লিকার ব্যারন। তাতে শুধু ওই চার জন যাত্রীই ছিলেন।

Advertisement

আরও পড়ুন: ১০৩ বছর বয়সে করোনাকে হারিয়ে নার্সিংহোমের বেডেই বিয়ারে চুমুক বৃদ্ধার

সোমবার, ২৫ মে দিল্লি থেকে এসে ভোপালের রাজাভোজ বিমানবন্দরে নামে বিমানটি। কিছুক্ষণের মধ্যে আবার মাত্র চার জন যাত্রী নিয়ে দিল্লি ফিরে যায়। বিষয়টি নিয়ে ভোপাল বিমানবন্দরের ডিরেক্টর অনিল বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা হলেও তা সম্ভব হয়নি। বিমান সংস্থার তরফেও বিশেষ কোনও তথ্য প্রকাশ করা হয়নি এই বিমানযাত্রা সম্পর্কে।

আরও পড়ুন: লকডাউনের মধ্যে প্রায় এক দশক পরে দেখা দিল এই লুপ্তপ্রায় ‘ভয়ঙ্কর’ চতুষ্পদ

তবে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ‘একটি এ-৩২০ বিমান এ ভাবে ভাড়া করতে গেলে খরচ পড়ে প্রায় ২০ লাখ টাকা’। তাই চার জন যাত্রীর জন্য ২০ লাখ টাকা খরচা করার মানে এক একটি টিকিটের দাম পড়ল পাঁচ লাখ টাকা।

Advertisement