Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

সুইমিং পুলে সময় কাটাচ্ছেন কর্নাটকের করোনার দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী, পদত্যাগ দাবি কংগ্রেসের

গোটা বিতর্কে পাল্টা সুধাকরের পাল্টা প্রশ্ন, ‘‘এটা কি অপরাধ?’’

সংবাদ সংস্থা
বেঙ্গালুরু ১৩ এপ্রিল ২০২০ ২০:৫৫
সুইমিং পুলের ছবি শেযার করে বিতর্কে কর্নাটকের মন্ত্রী কে সুধাকর। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

সুইমিং পুলের ছবি শেযার করে বিতর্কে কর্নাটকের মন্ত্রী কে সুধাকর। গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

গোটা দেশ করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় লড়াই করছে। লকডাউনে খাবারের সংস্থান করতে হিমশিম খাচ্ছেন গরিব আমজনতা। আর কর্নাটকে সেই করোনা-লড়াইয়ের নেতৃত্ব যাঁর কাঁধে, তিনিই কিনা সুইমিং পুলে পরিবারের সঙ্গে খোশমেজাজে সময় কাটাচ্ছেন! সেই ছবি আবার নিজেই সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে জানাচ্ছেন রাজ্যবাসীকে। কর্নাটকের মন্ত্রি সুধাকর কে-র এমন ‘দায়িত্বজ্ঞানহীন’ আচরণে ক্ষোভ আছড়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার জেরে টুইট মুছে দিয়েছেন মন্ত্রী। রাজ্যের বিরোধী দল কংগ্রেস পদত্যাগ দাবি করেছেন সুধাকরের। আর গোটা বিতর্কে পাল্টা সুধাকরের পাল্টা প্রশ্ন, ‘‘এটা কি অপরাধ?’’

সুইমিং পুলে পরিবারের সঙ্গে তিনি সাঁতার কাটছেন। রবিবার এমনই একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করে মন্ত্রী সুধাকর লিখেছিলেন, ‘‘দীর্ঘ দিন পর ছেলেমেয়েদের সঙ্গে সাঁতার কাটছি। আশা করি, এখানেও সামাজিক দূরত্ব বজায় রয়েছে।’’

কর্নাটকে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির মোকাবিলার দায়িত্বে যাঁরা রয়েছেন, তাঁদের নেতৃত্বের ভার বর্তেছে এই সুধাকরের উপরেই। রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও ২৫০ ছাড়িয়েছে। এমন সঙ্কটকালে এই ধরনের ছবি পোস্ট করায় স্বভাবতই তীব্র প্রতিক্রিয়া হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। অনেকেই মন্ত্রীর এমন আচরণের তীব্র নিন্দা করে রিটুইট করেন। পরে অবশ্য টুইটটি ডিলিট করে দেন মন্ত্রী।

Advertisement

আরও পড়ুন: স্তব্ধ অর্থনীতি, কিছু কল কারখানা দ্রুত খুলতে সওয়াল শিল্পমন্ত্রকের

তীব্র নিন্দা করে কর্নাটক প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি সুধাকরের পদত্যাগ দাবি করেছেন। তাঁর বক্তব্য, ‘‘সারা বিশ্ব যখন একটা কঠিন স্বাস্থ্য সঙ্কটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, তখন করোনাভাইরাস মোকাবিলার দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী সুধাকর সুইমিং পুলে সময় কাটিয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীনের মতো আচরণ করছেন। এটা নৈতিকতার প্রশ্ন। ওঁর নিজে থেকেই পদত্যাগ করা উচিত এবং মুখ্যমন্ত্রীর উচিত মন্ত্রিসভা থেকে ওঁকে বরখাস্ত করা।’’


আরও পড়ুন: কাজ নেই=পয়সা নেই আকালের ভয়াল সঙ্কেতে দিলীপ মাঝির বৃত্তান্ত

পরে একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমকে প্রতিক্রিয়ায় সুধাকর সাফাই দেন, ‘‘গত দু’মাসে এত পরিশ্রম করেছি যে, পরিবার-সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটানোর সুযোগ খুব কম পেয়েছি। আমরা লড়াই করছি। আমার ছেলেমেয়েরা ওদের সঙ্গে সুইমিং পুলে যেতে জোরাজুরি করছিল। কী ভাবে ওদের আবদার ফিরিয়ে দিই! তাই ১০-১৫ মিনিট সময় কাটিয়েছি। এটা আমার বাড়ির ভিতরেই শিশুদের একটা ছোট পুল। এটা কি অপরাধ?’’

আরও পড়ুন

Advertisement