Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Missile

কুইক রিঅ্যাকশন ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা করল ভারত

এর আগে, ২০১৭ সালের ৪ জুন প্রথম বার এই কুইক রিঅ্যাকশন ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা করে ভারত।

মিসাইলটি তৈরি করেছে ডিআরডিও। —ফাইল চিত্র।

মিসাইলটি তৈরি করেছে ডিআরডিও। —ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
বালেশ্বর শেষ আপডেট: ০৪ অগস্ট ২০১৯ ১৭:২৩
Share: Save:

ঝড় বৃষ্টি হোক বা খরা, সমতল ভূমি হোক বা উঁচু পার্বত্য অঞ্চল, যে কোনও পরিস্থিতিতে আঘাত হানতে সক্ষম কুইক রিঅ্যাকশন সারফেস টু এয়ার ক্ষেপণাস্ত্রের (কিউআরএসএএম) সফল পরীক্ষা করল ভারত। ভূমি থেকে আকাশে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম এই ক্ষেপণাস্ত্র। ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য এই বিশেষ ক্ষেপণাস্ত্রটি তৈরি করেছে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও)

রবিবার সকাল ১১টা ৫ মিনিটে ওড়িশার চাঁদিপুরের ইন্টেগ্রেটেড টেস্ট রেঞ্জে ক্ষেপণাস্ত্র বহনকারী মোবাইল ট্রাক বেসড লঞ্চ ইউনিট থেকে এই ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করা হয়। এই ক্ষেপণাস্ত্র আকারে এত ছোট যে চাইলে বয়ামের মধ্যে ভরে রাখা যায়। আবার এতে বিশেষ ধরনের বৈদ্যুতিন সেন্সর বসানো রয়েছে, যার সাহায্যে রেডারকেও ফাঁকি দিতে পারে।

এই ক্ষেপণাস্ত্র হাতে পেলে ভারতীয় সেনার শক্তি আরও বাড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। কারণ ডিআরডিও-র তরফে জানানো হয়েছে, ২৫ থেকে ৩০ কিলোমিটার দূরত্বে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম এই কুইক রিঅ্যাকশন ক্ষেপণাস্ত্র।

আরও পড়ুন: অজিত ডোভাল, গুপ্তচর-গোয়েন্দা প্রধানদের সঙ্গে বৈঠকে অমিত শাহ, কাশ্মীর নিয়ে বাড়ছে উৎকণ্ঠা​

আরও পড়ুন: জম্মু-কাশ্মীর ছাড়ার নির্দেশ মেন্টর ইরফান-সহ সাপোর্ট স্টাফদের, বাড়ি ফেরানো হল ক্রিকেটারদেরও​

এর আগে, ২০১৭ সালের ৪ জুন প্রথম বার এই কুইক রিঅ্যাকশন ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা করে ভারত। আবার এ বছর ২৬ ফেব্রুয়ারি, একই দিনে দু’বার সফল উৎক্ষেপণ হয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE