Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০২ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

অনুপ্রেরণা অভিনন্দন, উপত্যকায় ফের সেনায় যোগ দেওয়ার উন্মাদনা

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর ১০ মার্চ ২০১৯ ১৪:০৬
ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। —ফাইল চিত্র

ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। —ফাইল চিত্র

কয়েক দিন আগেই জম্মুতে দেখা গিয়েছিল ছবিটা। সেনাবাহিনীতে যোগদানের জন্য দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন উপত্যকার যুবকরা। কিন্তু তখনও অভিনন্দন বর্তমান ‘এপিসোড’ হয়নি। আবার সেই একই ছবি। কিন্তু এবার আরও বেশি ‘যোশ’, আরও বেশি উদ্দীপনা। অধিকাংশেরই অনুপ্রেরণা ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান। অনেকেরই বক্তব্য, ‘অভিনন্দনই তাঁদের রোল মডেল’।

জম্মু কাশ্মীরের ডোডা স্টেডিয়ামের বাইরে রবিবার সকাল থেকেই কাশ্মীরি যুবকদের লম্বা লাইন। কারণ এই স্টেডিয়ামেই বিভিন্ন পদে নিয়োগের জন্য শারীরিক সক্ষমতা ও অন্যান্য পরীক্ষার আয়োজন করেছিল ভারতীয় সেনবাহিনী। উধমপুর, রমবান, ডোডা এবং কিশতোয়ার জেলায় ৫৯টি শূন্যপদ পূরণের জন্য ছিল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি। সেখানেই লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন ২০৮৪ জন।

উপত্যকার যুবকদের মগজ ধোলাই করে বা মোটা টাকা দিয়ে জঙ্গি দলে নাম লেখানোর চেষ্টার অভিযোগ নতুন নয়। কিন্তু ওয়াকিবহাল মহলের অনেকেই মনে করছেন, পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলা এবং তার পরবর্তী অভিনন্দন বর্তমানের গোটা পর্ব, অনেকেরই মন ঘুরিয়ে দিয়েছে। তার প্রমাণও পাওয়া গেল লাইনে দাঁড়ানো যুবকদের সঙ্গে কথা বলার পর। অধিকাংশেরই বক্তব্য, তাঁরা অভিনন্দনের বীরত্বেই অনুপ্রাণিত।

Advertisement

অভিনন্দন বর্তমান সম্পর্কে কতটা জানেন?

আরও পডু়ন: সেনাকে নিয়ে রাজনীতি নয়, সমস্ত দলকে বার্তা নির্বাচন কমিশনের

মুবাস্সির আলি নামে এক যুবকের বক্তব্য, ‘‘সেনায় যোগ দিতেই লাইনে দাঁড়িয়েছি। দেশের সেবা করা আমাদের দায়িত্ব। অভিনন্দন বর্তমানকে দেখেই আমি অনুপ্রাণিত, উনিই আমার রোল মডেল।’’ আর এক যুবক রোহিত সিংহ বলেন, ‘‘আমি অভিনন্দনের পদক্ষেপকেই অনুসরণ করছি। সব যুবকই ওঁর মতো হতে চান।’’

আরও পডু়ন: মৃত জঙ্গির সংখ্যা জানতে চাওয়া লজ্জার, ইস্তফা কংগ্রেস নেতার

পুলওয়ামায় আত্মঘাতী জঙ্গি হানা হয় ১৪ ফেব্রুয়ারি। সেই ঘটনার রেশ ধরেই ২৬ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটিতে বোমা ফেলে আসে ভারতীয় বায়ুসেনা। এর পর গত ২৭ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানের একাধিক এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভারতের আকাশ সীমায় ঢুকে পড়ে। মিগ-২১ বাইসন যুদ্ধবিমান নিয়ে তাদের সঙ্গে ‘ডগফাইট’ করেন অভিনন্দন। পাকিস্তানের একটি এফ-১৬ ধ্বংস করেন। কিন্তু তাঁর বিমানটিও ধ্বংস হওয়ার পর ইজেক্ট করতে বাধ্য হন এবং পাক অধিকৃত কাশ্মীরে অবতরণ করেন। সেখানে পাক সেনা তাঁকে গ্রেফতার করে। প্রায় ৫৮ ঘণ্টা পাক সেনার হেফাজতে থাকার পর ফের ভারতের মাটিতে পা রাখেন অভিনন্দন। তাঁর এই বীরত্ব এবং পাক সেনার হাতে বন্দি থাকার সময়ও মানসিক দৃঢ়তায় ভারতীয় যুবকদের অনেকের কাছেই অনুপ্রেরণা হয়ে উঠেছেন।

(কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী, গুজরাত থেকে মণিপুর - দেশের সব রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ খবর জানতে আমাদেরদেশবিভাগে ক্লিক করুন।)

আরও পড়ুন

Advertisement