Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
National News

‘খুনিদের ক্ষমা করা হবে না’, ট্রাম্পের সফরের আগেই ভিডিয়োতে হুমকি জইশের

কাশ্মীরে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করতে সেনাঘাঁটি-সহ শহুরে এলাকাতেও নাশকতার পরিকল্পনা চলছে জঙ্গিদের।

আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি দু’দিনের সফরে এ দেশে আসছেন সস্ত্রীক ট্রাম্প।  ছবি: এএফপি।

আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি দু’দিনের সফরে এ দেশে আসছেন সস্ত্রীক ট্রাম্প। ছবি: এএফপি।

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর শেষ আপডেট: ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৪:৪৮
Share: Save:

ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরের আগে একটি ভিডিয়ো-বার্তায় নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিশোধের হুমকি দিল জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ। ওই ভিডিয়ো-বার্তায় মোদী সরকারের বিরুদ্ধে জইশের হুঁশিয়ারি, ‘‘খুনিদের ক্ষমা করা হবে না।’’

গত অগস্টে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপ করা এবং রাজ্য বিভাজনের পর থেকেই তার বিরোধিতা করে এসেছে পাকিস্তান। এ বার ভিডিয়োর মাধ্যমে জইশের হুঁশিয়ারি, কাশ্মীর বিভাজনের বদলা নেওয়া হবে। ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, ওই ভিডিয়োতে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদ্গার করতে দেখা গিয়েছে এক জঙ্গিকে। তাতে ওই জঙ্গির হুঁশিয়ারি, ‘‘যে ভাবে মুসলিমদের হেনস্থা করা হয়েছে, তাঁদের বসতি ধ্বংস করা হয়েছে, তার প্রতিশোধ নেওয়া হবে... শান্তির ঘুমপাড়ানি গান অনেক শুনেছি আমরা... সে সমস্ত অজুহাত আর শোনা হবে না... সব রাশ আলগা করার সময় এসেছে।’’

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফরে আর বেশি দিন বাকি নেই। আগামী ২৪ ফেব্রুয়ারি দু’দিনের সফরে এ দেশে আসছেন সস্ত্রীক ট্রাম্প। গোয়েন্দাদের একাংশের দাবি, সেই সফরের ঠিক আগেই এই ভিডিয়ো প্রকাশের অর্থ, এটা ফের এক বার বুঝিয়ে দেওয়া যে, মোদী সরকারের কাশ্মীর বিভাজনের সিদ্ধান্তে সন্তুষ্ট নয় পাকিস্তান। এটাও বোঝানোর চেষ্টা করা যে, ‘৩৭০ অনুচ্ছেদ রদের সিদ্ধান্তে কাশ্মীরিরা ক্ষুব্ধ এবং তাঁরা জঙ্গি হামলা করবেন।’ গোয়েন্দাদের আরও দাবি, চলতি মাসেই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে জঙ্গি গোষ্ঠীগুলির সঙ্গে একটি বৈঠক করেছে পাকিস্থান সেনা। তাতে উপস্থিত ছিলেন পাক গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই-এর কর্তারা। ওই বৈঠকে স্থির হয়েছে, উপত্যকায় হিজবুল মুজাহিদিনের জঙ্গিদের আরও সক্রিয় করা উচিত। সেই সঙ্গে পাক জঙ্গিদের পরিবর্তে উপত্যকায় ছড়িয়ে থাকা জঙ্গিদের হাতেই আরও দায়িত্ব দেওয়া উচিত বলেও নাকি আলোচনা হয়েছে ওই বৈঠকে। কাশ্মীরে সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ চালানোর জন্য লস্কর-ই-তইবা বা জইশ জঙ্গিদের পরিবর্তে হিজবুলের হাতেই সে দায়িত্ব দেওয়া উচিত বলেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে ভারতীয় গোয়েন্দারা জানিয়েছেন। গোয়েন্দা সূত্রে খবর, কাশ্মীরে আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করতে ভারতীয় সেনাঘাঁটি-সহ শহুরে এলাকাতেও নাশকতার পরিকল্পনা চলছে জঙ্গিদের।

আরও পড়ুন: ‘কেমছো’ পাল্টে হল ‘নমস্তে’, আট দিন আগে নাম বদলানো ট্রাম্পের ভারত সফরের

আরও পড়ুন: জামিয়ার লাইব্রেরিতে ঢুকে পুলিশের এলোপাথাড়ি লাঠি, সেই ঘটনার ভিডিয়ো এ বার প্রকাশ্যে এল

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE