Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৬ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Old lady-Viral: ‘ভিক্ষা করে খাব না’, রাস্তায় কলম বিক্রি করেন অশীতিপর বৃদ্ধা, ভাইরাল হল ছবি

সংবাদ সংস্থা
পুণে ১৮ অক্টোবর ২০২১ ১৩:০৩
পুণের এমজি রোডের রাস্তায় এলেই এঁর সঙ্গে দেখা হবে।

পুণের এমজি রোডের রাস্তায় এলেই এঁর সঙ্গে দেখা হবে।
ছবি: ইনস্টাগ্রাম

দাঁতবিহীন একগাল হাসিতে মলিনতা নেই। হাতে একখানি পিচবোর্ডের বাক্স। তার সাদা ঢাকনায় গোটা গোটা কালো অক্ষরে এক লাইনে লেখা, ‘আমি ভিক্ষা করতে চাই না।’ পরের লাইন, ‘দয়া করে ১০ টাকা দিয়ে নীল পেন কিনুন’। শেষ লাইন লেখা, ‘ধন্যবাদ। আমার আশীর্বাদ রইল।’

পুণের এমজি রোডের রাস্তায় এলেই এঁর সঙ্গে দেখা হবে। নাম রতন। অশীতিপর বৃদ্ধা। তবে অসক্ত শরীরে ক্লান্তি নেই। তাঁর ‘১০ টাকার নীল পেনের’ বাক্স নিয়ে সকাল থেকে সন্ধে হেঁটে বেড়ান। আগ্রহীদের দেখলে থেমে এক গাল হাসেন। তবে কলম কেনার জন্য অনুরোধ করেন না, জোর তো করেনই না।

রতনের এই গুণেই সম্প্রতি মুগ্ধ হন এক মহিলা উদ্যোগপতি। রতনকে দেখে তাঁর মনে হয়েছে এমন আত্মমর্যাদাসম্পন্ন মানুষই বাস্তবের নায়ক হওয়ার দাবি রাখেন। তাই রতনের সঙ্গে সাক্ষাতের অভিজ্ঞতার বিবরণ নিজের ইনস্টাগ্রামে সবিস্তার জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে ছবিও দিয়েছেন। রতনকে নিয়ে তাঁর ওই পোস্ট নজর কেড়েছে অনেকেরই। ছবি দেখে আর রতনের কথা জেনে তাঁর সঙ্গে সহমত পোষণ করেছেন অনেকে।

Advertisement

ওই উদ্যোগপতির নাম শিখা রাঠি। একটি পোশাক প্রস্তুতকারী সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা শিখা ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘আজ আমি বাস্তবের এক নায়ক এবং সত্যিকারের চ্যাম্পিয়নের দেখা পেলাম— রতন।’ ঘটনাটির কথা জানিয়ে শিখা লেখেন, ‘আমার বন্ধু ওঁর কলমের বাক্সটি দেখার পরই ওঁর থেকে একটি কলম কিনেছিল। তবে আমার যেটা সবথেকে ভাল লেগেছে তা হল, রতন আরও কলম কেনার জন্য জোর করেননি। বরং তাঁর মুখে অদ্ভুত এক তৃপ্তির হাসি ছিল।’ শিখা জানিয়েছেন রতনের এই নির্লোভ, সৎ এবং আত্মমর্যাদাবোধই তাঁকে মুগ্ধ করেছে। রতনের থেকে সেদিন আরও অনেকগুলি কলম কিনে নেন শিখা। রতনের কথা ইনস্টাগ্রামে জানিয়ে উদ্যোগপতি লেখেন, ‘আমার মনে হল, এমন মানুষেরই গুণগান করা উচিত। তাই আমার এই পোস্ট। আপনারা যদি কখনও এমজি রোডে যান, দয়া করে রতনের সঙ্গে দেখা করে ওঁর থেকে কলম কিনবেন। এতে রতনের তো ভাল লাগবেই, আমি নিশ্চিত আপনারও ভাল লাগবে।’

শিখার ওই পোস্ট বহু বার শেয়ার করা হয়েছে। বৃদ্ধার মর্যাদাবোধে অনেকেই মুগ্ধতা প্রকাশ করেছেন। রতনকে জীবনের অনুপ্রেরণা বলে মন্তব্যও করেছেন অনেকে।


আরও পড়ুন

Advertisement