×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৪ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘ওরা দেশকে চুপ করিয়ে রাখতে চায়’, ফের কেন্দ্রকে নিশানা সনিয়ার

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৯ অগস্ট ২০২০ ১৯:৪৯
নাম না করে মোদী সরকারকে তোপ সনিয়ার— ফাইল চিত্র।

নাম না করে মোদী সরকারকে তোপ সনিয়ার— ফাইল চিত্র।

গণতন্ত্রের কণ্ঠরোধের প্রশ্ন তুলে ফের কেন্দ্রকে বিঁধলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী। শনিবার একটি ভার্চুয়াল সভায় সরাসরি নরেন্দ্র মোদী সরকারের নাম না করে তিনি বলেন, ‘‘বিভেদকামী শক্তি দেশে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা কেড়ে নিচ্ছে।’’

ছত্তীসগঢ় বিধানসভার নতুন ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান উপলক্ষে আজ ভার্চুয়াল সভার আয়োজন করেছিল সে রাজ্যের কংগ্রেস সরকার। সে কারণেই সরাসরি কোনও ব্যক্তি বা দলের নাম উল্লেখ করেননি সনিয়া। কিন্তু দেশ জুড়ে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার উপর আঘাতের অভিযোগ তুলে ‘অভিমুখ’ স্পষ্ট করে দিয়েছেন তিনি। সনিয়ার কথায়, ‘‘ওরা দেশ জুড়ে বিদ্বেষের বিষ ছড়াচ্ছে। মানুষকে চুপ করিয়ে রেখে গণতন্ত্র ধ্বংস করছে। ওরা চায় দেশের জনগণ, আদিবাসী, মহিলা ও যুবসমাজ মুখে কুলুপ এঁটে বসে থাকুক।’’

সনিয়ার দাবি, মহাত্মা গাঁধী, জওহরলাল নেহরু, বাবাসাহেব অম্বেডকরেরা কখনও আঁচ করতে পারেননি, স্বাধীনতার ৭০ বছর পরে দেশের পরিস্থিতি এমন ভয়াবহ হতে পারে। তাঁর কথায়, ‘‘দেশের সংবিধান এবং গণতন্ত্র এখন সঙ্কটের মুখে।’’ তাঁর অভিযোগ, দেশের ‘লোকশাহি’ (গণতন্ত্র) ক্রমশ দুর্বল হচ্ছে, তানাশাহি (স্বৈরতন্ত্র) শক্তিশালী হচ্ছে।

Advertisement

আরও পড়ুন: পূর্ব মেদিনীপুরের পুকুরে তরাইয়ের কচ্ছপের বসত

গত ১৫ অগস্ট ৭৪ তম স্বাধীনতা দিবসের বক্তৃতাতেও মত প্রকাশের স্বাধীনতা প্রশ্নে কেন্দ্রকে নিশানা করেছিলেন সনিয়া। তিনি বলেন, ‘‘বর্তমান সরকার গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা, সাংবিধানিক মূল্যবোধ এবং চিরাচরিত ঐতিহ্যের বিপরীতে অবস্থান করছে। ভারতীয় গণতন্ত্রের পক্ষে এ বড় কঠিন সময়।’’ অভিযোগ করেছিলেন, গণতান্ত্রিক কাঠামোয় দায়িত্বশীল বিরোধীর ভূমিকা পালনের ক্ষেত্রে মোদী সরকার অন্তরায় হয়ে উঠছে।

আরও পড়ুন: দেশে মতপ্রকাশের স্বাধীনতা আছে কি? মোদী সরকারকে প্রশ্ন সনিয়ার​

Advertisement