Advertisement
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Karni Sena Chief Murder

চণ্ডীগড় থেকে গ্রেফতার করণী সেনাপ্রধান সুখদেব গোগামেড়ি খুনে অভিযুক্ত তিন শুটার

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতেরা হল রোহিত রাঠৌর, নিতিন ফৌজি এবং উধম সিংহ। তবে এই খুনের ঘটনায় উধমের ঠিক কী ভূমিকা ছিল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এই নিয়ে মোট চার জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

করণী সেনাপ্রধান সুখদেব সিংহ গোগামেড়ি। ফাইল চিত্র।

করণী সেনাপ্রধান সুখদেব সিংহ গোগামেড়ি। ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১০ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৯:০৩
Share: Save:

হরিয়ানার চণ্ডীগড় থেকে গ্রেফতার করা হল রাষ্ট্রীয় রাজপুত করণী সেনাপ্রধান সুখদেব সিংহ গোগামেডির খুনে অভিযুক্ত তিন শুটারকে। দিল্লি এবং রাজস্থান পুলিশের যৌথ দল গোপন সূত্রে খবর পেয়ে চণ্ডীগড়ে তল্লাশি অভিযানে গিয়েছিল। সেখান থেকেই গভীর রাতে তিন শুটারকে গ্রেফতার করেছে তারা।

পুলিশ সূত্রে খবর, ধৃতেরা হল রোহিত রাঠৌর, নিতিন ফৌজি এবং উধম সিংহ। তবে এই খুনের ঘটনায় উধমের ঠিক কী ভূমিকা ছিল তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। এই নিয়ে এই ঘটনায় মোট চার জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। রামবীর জাঠ নামে এক ব্যক্তিকে আগেই গ্রেফতার করা হয়েছিল। রোহিত এবং নিতিনকে পালাতে সাহায্য করার অভিযোগ উঠেছে রামবীরের বিরুদ্ধে।

শনিবার রাতেই রোহিত এবং উধমকে দিল্লি নিয়ে আসে পুলিশ। নিতিনকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে রাজস্থান পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, গোগামেড়িকে খুনের পর হামলাকারীরা অস্ত্র লুকিয়ে ফেলেছিল। তার পর রাজস্থান থেকে হরিয়ানার হিসারে পালিয়ে যায়। সেখান থেকে হিমাচলপ্রদেশের মানালি। তার পর আবার হরিয়ানায় ফিরে আসে তিন শুটার। চণ্ডীগড়ে আশ্রয় নিয়েছিল তারা। হামলাকারীদের ফোনের টাওয়ার লোকেশন চিহ্নিত করে এবং গোপন সূত্রে খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তিন জনকে গ্রেফতার করেছে।

গত ৫ ডিসেম্বর ঘরে ঢুকে করণী সেনাপ্রধানকে গুলি করে হত্যা করা হয়। করণী সেনাপ্রধানের খুনের পর পরই লরেন্স বিষ্ণোই গ্যাং ঘনিষ্ঠ রোহিত গোদারা নামে এক গ্যাংস্টার এই খুনের দায় স্বীকার করেন। পুলিশ জানিয়েছে, গোদারা ঘনিষ্ঠ বীরেন্দ্র তৌহান এবং দানারামের ইশারাতেই গোগামেড়িকে গুলি করে খুন করা হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE