Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Uddhav Thackeray

উদ্ধব অনুগামী সঞ্জয় রাউতকে খুন করতে ঠাণের এই গ্যাংস্টারকে ‘সুপারি’ শিন্ডে-পুত্রের?

বিজেপি নেতা ফড়ণবীসকে পাঠানো চিঠিতে সঞ্জয় লিখেছেন, “আমি জানতে পেরেছি, কুখ্যাত গ্যাংস্টার রাজা ঠাকুরকে আমার বিরুদ্ধে প্রাণঘাতী হামলা চালানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।”

Uddhav Thackeray follower Shiv Sena MP Sanjay Raut claims, Eknath Shinde\\\'s son hired contract killer Raja Thakur to eliminate him

শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত (বাঁ দিকে) ও ঠাণের গ্যাংস্টার রাজা ঠাকুর (ডান দিকে)। ফাইল ছবি।

সংবাদ সংস্থা
মুম্বই শেষ আপডেট: ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২৩:৪৩
Share: Save:

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী একনাথ শিন্ডের ছেলে তথা শিবসেনা সাংসদ শ্রীকান্তের বিরুদ্ধে তাঁকে খুনের জন্য ‘সুপারি’ দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন উদ্ধব ঠাকরে অনুগামী শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত। শুধু তাই নয়, সেই ‘ভাড়াটে খুনি’র নামও প্রকাশ্য এনেছেন তিনি। মহারাষ্ট্রের উপমুখ্যমন্ত্রী তথা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবীসকে পাঠানো চিঠিতে রাজ্যসভা সাংসদ সঞ্জয়ের দাবি, ঠাণের গ্যাংস্টার রাজা ঠাকুরকেই খুনের দায়িত্ব দিয়েছেন শ্রীকান্ত।

ঘটনাচক্রে একনাথ-পুত্র শ্রীকান্ত ঠাণেরই সাংসদ। তাঁর সঙ্গে রাজার ‘ঘনিষ্ঠতা’ নিয়ে জল্পনাও রয়েছে। বিজেপি নেতা ফড়ণবীসকে পাঠানো চিঠিতে সঞ্জয় লিখেছেন, “আমি জানতে পেরেছি, কুখ্যাত গ্যাংস্টার রাজা ঠাকুরকে আমার বিরুদ্ধে প্রাণঘাতী হামলা চালানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। মহারাষ্ট্রের বর্তমান পরিস্থিতি দেখে, এই বিষয়টি আপনার নজরে আনা প্রয়োজন মনে হয়েছে।’’

গত বছর শিন্ডেগোষ্ঠীর বিদ্রোহের জেরে উদ্বব মুখ্যমন্ত্রিত্ব হারানোর পরে তাঁর শিবিরের গুরুত্বপূর্ণ নেতা সঞ্জয়কে বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে গ্রেফতার করেছিল কেন্দ্রীয় সংস্থা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। প্রায় ৩ মাস জেলে থাকার পরে জামিনে মুক্ত পান উদ্ধবসেনার রাজ্যসভা সাংসদ। মুক্তর পরেও ধারাবাহিক ভাবে শিন্ডে শিবিরকে নিশানা করে চলেছেন তিনি। গত সপ্তাহে নির্বাচন কমিশন শিন্ডেগোষ্ঠীকে ‘শিবসেনা’ নাম এবং নির্বাচনী প্রতীক দেওয়ার পর সঞ্জয় বলেছিলেন, ‘‘শিবসেনার প্রতীক পাওয়ার জন্য ২০০০ কোটি টাকার লেনদেন হয়েছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE