Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

নীরব মোদী ইংল্যান্ডেই, লন্ডন নিশ্চিত করার পরও দেশে ফেরানো যাবে কি?

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২০ অগস্ট ২০১৮ ১৫:০২
ইংল্যান্ডেই রয়েছেন নীরব মোদী, নিশ্চিত করল ইংল্যান্ড। —ফাইল ছবি

ইংল্যান্ডেই রয়েছেন নীরব মোদী, নিশ্চিত করল ইংল্যান্ড। —ফাইল ছবি

নীরব মোদী ব্রিটেনেই। অবশেষে সরকারি ভাবে জানাল। প্রত্যর্পণের আবেদন আগেই ছিল। লন্ডন নিশ্চিত করার পর সাড়ে ১৩ হাজার কোটির পিএনবি ঋণ কেলেঙ্কারিতে অভিযুক্ত নীরব মোদীকে নতুন করে দেশে ফেরানোর তোড়জোড় শুরু করল সিবিআই। শুরু হয়েছে কূটনৈতিক তৎপরতাও।

তবে লন্ডন নিশ্চিত করলেই যে ব্যাঙ্ক জালিয়াতির পাণ্ডা জহুরি নীরব মোদীকে অদূর ভবিষ্যতে নয়াদিল্লি হাতে পাবে, এমন আশা কম। কারণ ব্রিটেন থেকে ভারতে প্রত্যর্পণের ক্ষেত্রে নয়াদিল্লির অতীত অভিজ্ঞতা মোটেই সুখকর নয়। গত ১৬ বছরে ন’বার ভারতের প্রত্যর্পণের আর্জি খারিজ করেছে লন্ডন।

জানুয়ারি মাসে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ঋণ কেলেঙ্কারি সামনে আসার পরই নানা মাধ্যমে খবর মেলে নীরব মোদী ও তাঁর মামা মেহুল চোক্সী ব্রিটেনেই রয়েছেন। তবে অ্যান্টিগার নাগরিকত্ব নিয়ে বহাল তবিয়তেই রাজপাট চালাচ্ছেন মেহুল চোক্সী। মামা হাতছাড়া হলেও ভাগনে নীরব যে ব্রিটেনেই রয়েছেন, নয়াদিল্লির তরফে সেকথা বারবার দাবি করা হয়েছে। একদিকে কূটনৈতিক চাপ, অন্যদিকে আইনি পদ্ধতি মেনে ব্রিটেনে তদ্বির করা হয়েছে। কিন্তু নীরব মোদী নিয়ে লন্ডন এতদিন কার্যত নীরবই থেকেছে।

Advertisement



পিএনবি কেলেঙ্কারিতে আরেক অভিযুক্ত মেহুল চোক্সী অ্যান্টিগার নাগরিক। —ফাইল ছবি

শেষ পর্যন্ত কিছুদিন আগে সিবিআই ইন্টারপোলকে একটি নোটিস পাঠায়। ইন্টারপোলের মাধ্যমে সেই নোটিস যায় ব্রিটেনে। রবিবার সেই নোটিসের উত্তরেই একটি ই-মেল পাঠান লন্ডনের আধিকারিকরা। তাতে বলা হয়েছে, নীরব মোদী ব্রিটেনেই রয়েছেন। তবে কোথায় রয়েছেন তিনি সে বিষয়ে এখনও স্পষ্ট করে জানানো হয়নি।

আরও পড়ুন: ছাদেই নেমে এল কপ্টার, দুঃসাহসিক উদ্ধার কেরলে

নীরব মোদীকে দেশে ফেরানোর তোড়জোড় চলছিলই। লন্ডন নিশ্চিত করার পরই নতুন করে গা ঝাড়া দিয়ে উঠেছে সিবিআই। ইন্টারপোলের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ ও তথ্য আদান-প্রদানও চালিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। এ মাসের গোড়ায় সংসদের অধিবেশনে সরকারের তরফে বিদেশ প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিংহ জানিয়েছিলেন, নীরব মোদীকে দেশে ফেরাতে ব্রিটেনের কাছে প্রত্যর্পণের আর্জি জানানো হয়েছে কূটনৈতিক নিয়ম-কানুন মেনে। লন্ডনের স্বীকৃতির পরই কূটনৈতিক স্তরেও নয়াদিল্লির তরফে ফের চাপ দেওয়ার কৌশল শুরু হয়েছে বলে খবর।

আরও পড়ুন: আমি মরি তো মরব, তুলে নিয়ে যান ওঁদের

২০০২ সাল থেকে ভারতে দুর্নীতি করে ইংল্যান্ডে পালানো মোট ২৯ জনকে প্রত্যর্পণের আবেদন জানিয়েছে নয়াদিল্লি। তার মধ্যে শেষ তথা ২৯তম আবেদনটিই নীরব মোদীকে ফেরানোর জন্য। কিন্তু গত ১৬ বছরে লন্ডন ন’টি ক্ষেত্রেই ভারতকে হতাশ করে আবেদন ফিরিয়ে দিয়েছে। বিজয় মাল্যর মতো বেশ কয়েকটি মামলা ব্রিটেনের বিভিন্ন আদালতে ঝুলে রয়েছে। আবার পিএনবি কেলেঙ্কারির আর এক অভিযুক্ত টাকা দিয়ে অ্যান্টিগার নাগরিকত্ব নিয়েছেন। তিনি কার্যত ধরাছোঁয়ার বাইরে। আর প্রত্যর্পণের ক্ষেত্রে ইংল্যান্ডের ইতিহাস ঘেঁটে নীরব মোদীর ক্ষেত্রেও এখনই খুব বেশি আশা দেখছে না নয়াদিল্লি।

দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরা বাংলা খবর পেতে পড়ুন আমাদের দেশ বিভাগ।

আরও পড়ুন

Advertisement