×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জুন ২০২১ ই-পেপার

হোয়াটসঅ্যাপের নয়া নীতিতে স্থগিতাদেশ দিল না দিল্লি হাইকোর্ট

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ১৬:০৮
হোয়াটসঅ্যাপের নয়া প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে মামলা চলছে দিল্লি হাইকোর্টে— ফাইল চিত্র।

হোয়াটসঅ্যাপের নয়া প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে মামলা চলছে দিল্লি হাইকোর্টে— ফাইল চিত্র।

হোয়াটসঅ্যাপের নয়া ব্যক্তিগত গোপনীয়তা সংক্রান্ত নীতি (প্রাইভেসি পলিসি)-র উপর স্থগিতাদেশ জারির আবেদনে সাড়া দিল না দিল্লি হাইকোর্ট। সোমবার এ সংক্রান্ত পর্যবেক্ষণ ঘোষণার সময় আবেদনকারীর উদ্দেশে দিল্লি হাইকোর্ট বলেছে, ‘হোয়াটসঅ্যাপ একটি বেসরকারি অ্যাল্পিকেশন। ব্যবহারের বিষয়টি পুরোপুরি ঐচ্ছিক। তাই আপনি ইচ্ছে করলেই হোয়াটসঅ্যাপের বদলে অন্য কোনও মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে পারেন’।

সেই সঙ্গে দিল্লি হাইকোর্টের মন্তব্য, ‘বেশির ভাগ মোবাইল অ্যাপের শর্তগুলি পড়ে দেখলে, আপনি কীসে সম্মতি দিচ্ছেন তা দেখে অবাক হয়ে যাবেন’। এ প্রসঙ্গে আবেদনকারী আইনজীবীকে বিচারপতি সঞ্জীব সচদেব বলেন, ‘‘এমনকি, গুগল ম্যাপ আপনার সব তথ্য নিয়ে জমা করে রাখে।’’

হোয়াটসঅ্যাপের নয়া গোপনীয়তা সংক্রান্ত নীতির উপর স্থগিতাদেশ চেয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন চৈতন্য রোহিল্লা নামে এক আইনজীবী। তাঁর আবেদনে বলা হয়, ‘তৃতীয় পক্ষের হাতে হোয়াটসঅ্যাপ যেন ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য তুলে দিতে না পারে। একইসঙ্গে আবেদন করা হয়, যত দিন পর্যন্ত ‘পার্সোনাল প্রোটেকশন বিল’ পাশ না হচ্ছে, তত দিন যেন হোয়াটসঅ্যাপ তাদের নতুন পলিসি ব্যবহার করার সুযোগ না পায়। সেই সঙ্গে ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপের পলিসির উপর স্থগিতাদেশ আনার দাবি করেন আবেদনকারী।

Advertisement

বিচারপতি সচদেব সোমবার বলেন, ‘‘আবেদনকারীর কাছে এখনও স্পষ্ট নয়, কোন কোন ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। তাই বিষয়টি পর্যালোচনার জন্য আরও সময় প্রয়োজন।’’ আগামী ২৫ জানুয়ারি ফের এই মামলার শুনানি হবে বলে জানান তিনি। হোয়াটসঅ্যাপের পক্ষে মামলার শুনানিতে অংশ নেন আইনজীবী কপিল সিব্বল এবং মুকুল রোহতগি। তাঁরা আদালতকে জানান, পরিবার এবং বন্ধুদের সঙ্গে ব্যক্তিগত ‘চ্যাট’ সংরক্ষিত না রাখার বিষয়ে পুরনো অবস্থানই বহাল রাখবে হোয়াটসঅ্যাপ।

আরও পড়ুন: শুভেন্দুর ডেরায় মাস্টারস্ট্রোক, নন্দীগ্রামে মমতা নিজেই ভোটপ্রার্থী

ফেব্রুয়ারি থেকে নতুন ‘প্রাইভেসি পলিসি’ চালু করার কথা ঘোষণা করেছিল হোয়াটসঅ্যাপ। কিন্তু তা ইতিমধ্যেই মে মাস পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই নীতি অনুযায়ী ব্যবহারকারীকে জানাতে হবে, হোয়াটসঅ্যাপে প্রাপ্ত তথ্য তিনি তৃতীয় কোনও পক্ষকে দিতে পারবেন না।

আরও পড়ুন: টিভি-তেও মমতার নন্দীগ্রামের সভা দেখলেন না শিশির-দিব্যেন্দু

Advertisement