• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে নির্বিচারে গুলি বন্দুকবাজের, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯, আহত ২০

Death
হত্যালীলা, ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদের সামনে। ছবি: এপি।

Advertisement

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে বন্দুকবাজের হামলায় নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪৯ জন। আহত বহু। হামলায় সময় মসজিদের কাছেই ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। যদিও তাঁরা সবাই সুরক্ষিত আছেন বলেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের তরফে জানানো হয়েছে। এ দিনের হামলায় পরই গোটা এলাকায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে একজন মহিলা।

তখন ঘড়িতে বেলা পৌনে ২টো। মসজিদের ভিতরে চলছে সাপ্তাহিক নমাজ পর্ব। জড়ো হয়েছিলেন বহু মানুষ। হঠাৎ পর পর গুলির শব্দ। দিকভ্রান্তের মতো ছুটোছুটি পরে গেল মসজিদের ভিতর। সেনার পোশাকে থাকা বন্দুকবাজের নির্বিচারে গুলি চালিয়ে চলেছে তখনও। মুহূর্তে রক্তে ভেসে গেল মসজিদ চত্বর। এই হামলার ঘটনাটিকে দেশের অন্ধকারতম দিনগুলির মধ্যে একটি বলে বিবৃতি দিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আর্দের্ন। 

ঘটনাস্থল নিউজিল্যান্ডের ক্রাইসচার্চের সাউথ আইল্যান্ডের আল নুর মসজিদ। শুক্রবার এখানেই এক (যদিও কারও কারও দাবি দু’জন) বন্দুকবাজের হামলায় প্রাণ হারালেন কমপক্ষে ৪৯ জন। নিউজিল্যান্ডের পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ জানিয়েছেন হামলায় নিহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪৯ জন। হামলায় আহত বহু। যাঁদের মধ্যে অনেকের অবস্থাই গুরুতর। প্রাথমিক ভাবে পুলিশ জানিয়েছে, সেনার পোশাকে মসজিদের ভিতর ঢুকেছিল ওই বন্দুকবাজ। মসজিদে প্রায় ৫০ রাউন্ড গুলি চলে।

হামলার পর মুহূর্তের কিছু ছবি।

এ দিনের হামলায় অল্পের জন্য রক্ষা পান বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। হামলায় সময়ই মসজিদে নমাজ পড়তে যাচ্ছিলেন তাঁরা। এই মুহূর্তে নিউজিল্যান্ড সফরে রয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। হামলার পর বাংলাদেশের ক্রিকেটার তামিম ইকবাল টুইট করে জানিয়েছেন, সব ক্রিকেটারই সুরক্ষিত আছেন। টুইট করে একই কথা জানিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডও।

ঘটনাস্থলে নিরাপত্তা কর্মীরা। ছবি: এএফপি।

আরও পড়ুন: পরিবেশ রক্ষায় আজ পথে ৯৮ দেশের পড়ুয়া

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, কালো পোশাকে মসজিদের ভিতর ঢুকেছিল ওই বন্দুকবাজ। তাঁর কথায়, ‘‘আমি তখন মসজিদের অন্য একটি দরজার সামনে দাঁড়িয়েছিলাম। সাপ্তাহিক নমাজ পাঠ চলছিল। হঠাৎ গুলি চালাতে শুরু করে ওই বন্দুকবাজ। আমি কম করে চার-পাঁচ জনকে মৃত অবস্থায় দেখতে পাই। বরাত জোরে মসজিদ থেকে পালাতে পেরেছি।”

এ দিনের হামলার পরই নিউজিল্যান্ডের পুলিশ কমিশনার মাইক বুশ জানিয়েছেন, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷ গোটা এলাকা ঘিরে রাখা হয়েছে। এখনও গুলির লড়াই চলছে বলে জানা গিয়েছে।

(আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, আন্তর্জাতিক চুক্তি, আন্তর্জাতিক বিরোধ, আন্তর্জাতিক সংঘর্ষ- সব গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক খবর জানতে চোখ রাখুন আমাদের আন্তর্জাতিক বিভাগে।)

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন