• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মোদীকে ‘কাশ্মীর প্রতিশ্রুতি’ পালন করতে বললেন ট্রাম্প

Donald Trump Narendra Modi
নিউইয়র্কে নরেন্দ্র মোদী এবং ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: পিটিআই।

দু’পক্ষ রাজি হলে কাশ্মীর নিয়ে মধ্যস্থতা করতে আপত্তি নেই তাঁর। সোমবার ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের পর ফের এমনই বার্তা দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এ বার কাশ্মীর নিয়ে নরেন্দ্র মোদীকে তাঁর প্রতিশ্রুতির কথা মনে করিয়ে দিলেন তিনি। ট্রাম্পের কথায়, কাশ্মীরবাসীকে উন্নততর জীবনযাত্রার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা পূরণ করে দেখান মোদী।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ সভায় যোগ দেওয়ার পাশাপাশি নিউইয়র্কে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন ট্রাম্প। তা নিয়ে হোয়াইট হাউসের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়। তাতে বলা হয়, ‘পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক মেরামত করতে মোদীকে উৎসাহিত করেছেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। সেই সঙ্গে কাশ্মীরবাসীকে যে উন্নততর জীবনযাত্রার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তা-ও পূরণ করতে বলছেন তিনি।’

গত ৫ অগস্ট সংসদে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর দু’মাস কাটতে চললেও, এখনও অবরুদ্ধ উপত্যকা। সংবাদমাধ্যম এবং অন্য রাজ্য বা দেশ থেকে এখনও কারও প্রবেশের অনুমতি নেই সেখানে। তাই উপত্যকায় কী ঘটছে সে ব্যাপারে স্পষ্ট ধারণা নেই কারও। তা নিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে ইতিমধ্যেই নানা ধরনের তথ্য উঠে এসেছে। বিষয়টি নিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জে ভারতকে কোণঠাসা করার প্রস্তুতি নিচ্ছে পাকিস্তান। তার আগে মঙ্গলবার ৪০ মিনিট ধরে বৈঠক করেন ট্রাম্প ও মোদী। সেখানেই ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে কাশ্মীর প্রতিশ্রুতির কথা মনে করিয়ে দেন ট্রাম্প। 

আরও পড়ুন: বিশ্বাস করি, মোদী মুসলিম মৌলবাদ মোকাবিলা করতে পারবেন, বললেন ট্রাম্প​

মার্কিন প্রেসিডেন্টের এই মন্তব্য নিয়ে ইতিমধ্যেই কাটাছেঁড়া শুরু হয়ে গিয়েছে। কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘন হচ্ছে বলে একাধিক বার অভিযোগ করেছে পাকিস্তান। দু’দিন পর রাষ্ট্রপুঞ্জেও বিষয়টি তুলে ধরবেন ইমরান। তার আগে ট্রাম্পের এই মন্তব্যে কিছুটা হলেও ভারতের অস্বস্তি বাড়ল মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞরা।  তবে ওই একই বৈঠকে মোদীর প্রশংসাও করেন ট্রাম্প। পারলে মোদী-ই মুসলিম মৌলবাদের মোকাবিলা করতে পারেন বলে জানান তিনি। সেই সঙ্গে মোদীকে ‘ভারতের জনক’ বলেও উল্লএখ করেন তিনি।

এর পাশাপাশি পাকিস্তানের সঙ্গে সমস্যা মিটিয়ে নেওয়ারও পরামর্শ দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, “আমার মনে হয়, একে অপরকে জানার সুযোগ পেলে, নরেন্দ্র মোদী এবং ইমরান খানের মধ্যে রসায়ন ভালই জমবে। দু’জনের মধ্যে কথা হলে, তা থেকে ভাল কিছু বেরিয়ে আসবেই। আর কাশ্মীর নিয়ে কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারলে তো কথাই নেই।’’

আরও পড়ুন:  সন্ত্রাস-বিরোধী মঞ্চে মোদীর কড়া বার্তা চিন-আমেরিকাকেও​

এর আগে, সোমবার ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের পরও দুই দেশের নেতাদের আলোচনায় বসার পরামর্শ দিয়েছিলেন ট্রাম্প। ভারত এবং পাকিস্তান রাজি হলে, কাশ্মীর প্রশ্নে তিনি মধ্যস্থতা করতে পারেন বলেও জানিয়েছিলেন। তবে সন্ত্রাস দমনে পদক্ষেপ না করাতেই পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা এগোয়নি বলে পাল্টা জানিয়েছেন ভারতের বিদেশ সচিব বিজয় গোখলে। তিনি বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন যে, আমরা আলোচনা থেকে পিছু হটছি না। কিন্তু আলোচনায় বসতে গেলে আগে সন্ত্রাস দমনে কড়া পদক্ষেপ করতে হবে পাকিস্তানকে। এখনও পর্যন্ত যা চোখে পড়েনি।’’

গোখলে আরও জানান, ‘‘গত ৩০ বছরে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিদের হামলায় ভারতে ৪২ হাজার মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন, সে কথাও তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। একজোট হয়ে এর বিরোধিতা করা উচিত আন্তর্জাতিক মহলের। কারণ উন্নত দেশগুলি থেকেও বহু সংখ্যক মানুষ সন্ত্রাসী কাজকর্মে লিপ্ত হয়েছেন।’’ মুসলিম জনসংখ্যার নিরিখে ভারত বিশ্বের দ্বিতীয় দেশ হলেও, এ দেশের মুসলিমদের মধ্যে মৌলবাদী কাজর্মে যোগ দেওয়ার প্রবণতা তুলনামূলক কম, নিউইয়র্কে প্রধানমন্ত্রী সে কথাও তুলে ধরেন বলে জানিয়েছেন গোখলে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন