কথায় আছে ‘চুরি বিদ্যা মহাবিদ্যা যদি না পড়ে ধরা’। কিন্তু ভাবুন, চুরির মাল দেখে চোরের আত্মরাম যদি খাঁচা ছাড়া হয়ে যায়, কেমন হয়! এমনই উপক্রম হয়েছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সান হোসের চোরের একটি দলের। কারণ তাঁরা যে ব্যাগটি চুরি করেছে তার মধ্যে ছিল চারটি পাইথন ও একটি বিশাল সরিসৃপ!

ব্রায়ান গান্ডি ক্যালিফোর্নিয়ার ক্যাম্পবেলের এক ব্যবসায়ী। তাঁর দোকানের নাম ‘ফর গুডনেস স্নেক’। এটি সাপ সংক্রান্ত একটি শিক্ষামূলক ব্যবসা।শনিবার তিনি একটি গ্রন্থাগারে চারটি সাপ ও একটি বড় সরিসৃপ নিয়ে যান প্রেজেন্টেশনের জন্য। প্রেজেন্টেশনের পর প্রাণীগুলিকে ব্যাগে ভরে পার্কিং এরিয়াতে আসেন। সেখানে গাড়ি বের করার আগে ব্যাগটিকে একটু দূরে রেখে গাড়ির কাছে যান।

সংবাদমাধ্যমকে ব্রায়ান জানিয়েছেন, এক থেকে দেড় মিনিটের মধ্যে তিনি ব্যাগের কাছে ফিরে আসেন। কিন্তু সেখানে ব্যাগ ছিল না। ততক্ষণে তিনি বুঝে গিয়েছেন, ব্যাগটি চুরি গিয়েছে। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি পার্কিং লট থেকে বাইরে আসেন। দেখতেও পান একদল লোক তাঁর ব্যাগপত্র নিয়ে পালাচ্ছে। কিন্তু ব্রায়ান তাঁদের ধরতে পারেননি।

আরও পড়ুন : পাইথনের তাড়া খেয়ে ল্যান্ড রোভার নিয়ে পালাচ্ছেন পর্যটকরা!

শেষ পর্যন্ত ব্যাগ না পেয়ে তিনি রবিবার অনলাইন অভিযোগ জানান। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, ব্যাগে যে প্রাণীগুলি রয়েছে সেগুলি বিষধর নয়। মোট চারটি সাপ রয়েছে। ‘পাইপার’,‘বব’ ও ‘হোয়াইটি’ নামের তিনটি বল পাইথন ও ‘শর্টি’ নামের একটি বার্মিজ পাইথন। এছাড়াও ‘স্ট্রেচ’ নামের সরিসৃপ ছিল যার বয়স প্রায় ১২ বছর। ব্রায়ান জানিয়েছেন, প্রাণীগুলির বাজারমূল্য ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ টাকা। তবে তার থেকেও বড় কথা এই প্রাণীগুলিকে তিনি ডিম থেকে ফুটিয়েছিলেন। ফলে এগুলি তাঁর সন্তানের মতো।

আরও পড়ুন : হিরের মধ্যে হিরে! প্রথমবার খোঁজ মিলল এই রকম মূল্যবান রত্নের

ব্রায়ানের আবেদন, প্রাণীগুলি যেহেতু বিষধর নয়, তাই এগুলি থেকে কারও ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা নেই। তাঁর অনুমান, ভিতরে কী আছে না জেনেই ব্যাগটি চুরি করা হয়েছে। তাই তাদের ক্ষতি না করেই যদি সেগুলি ফিরিয়ে দেওয়া হয় তবে তিনি কৃতজ্ঞ থাকবেন।