প্রচণ্ড গরমে জলের অভাবে মেক্সিকো-আমেরিকা সীমান্তে আরিজোনার মরুভূমি লাগোয়া এলাকায় মৃত্যু হল একটি ভারতীয় শিশুর। পুলিশ জানাচ্ছে, তার নাম গুরুপ্রীত কউর। বয়স ৬ বছর। হিট স্ট্রোকে মৃত্যু হয়েছে শিশুটির।

মার্কিন বর্ডার প্যাট্রল পুলিশ সূত্রের খবর, শিশু-সহ কয়েক জনকে নিয়ে তার মা ভারত থেকে গিয়েছিলেন মেক্সিকোয়। উদ্দেশ্য ছিল, মেক্সিকো সীমান্ত দিয়ে ঢুকে আমেরিকায় আশ্রয় নেওয়া। মেক্সিকো থেকে আরও অনেকের সঙ্গে তাঁদের গাড়িতে চাপিয়ে আরিজোনার মরুভূমি-লাগোয়া এলাকায় মঙ্গলবার সকালে নামিয়ে দিয়ে যায় পাচারকারীরা। আশ্রয় নিতেই তারা মেক্সিকো সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকেছিল আমেরিকায়। প্রচুর অর্থের বিনিময়ে পাচারকারীরা মেক্সিকো সীমান্ত থেকে এই ভাবেই আমেরিকায় ঢুকিয়ে দিয়ে যায় অনুপ্রবেশকারীদের, মার্কিন বর্ডার প্যাট্রল পুলিশের নজর এড়িয়ে।

মেক্সিকো সীমান্তে মার্কিন বর্ডার প্যাট্রল পুলিশ এবং পিমা কাউন্টি অফিস অব দ্য মেডিক্যাল এগজামিনার (পিসিওএমই) জানিয়েছে, পাঁচ জনের একটি ভারতীয় অনুপ্রবেশকারীর দলে ছিল ওই শিশু ও তার মা। আরও কয়েকটি দলের সঙ্গে অনুপ্রবেশকারীদের এই দলটিকেও মঙ্গলবার সকালে একটি গাড়িতে চাপিয়ে পাচারকারীরা টাকসনের ৫০ মাইল দক্ষিণ-পশ্চিমে মরুভূমি লাগোয়া আরিজোনার সীমান্ত শহর লুকেভিলেতে নামিয়ে দিয়ে যায়। ওই দিন লুকেভিলের তাপমাত্রা পৌঁছেছিল ১০৮ ডিগ্রি ফারেনহাইট বা ৪২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মরুভূমি লাগোয়া ওই এলাকায় প্রচণ্ড গরমে হাঁটতে গিয়ে তৃষ্ণার্ত হয়ে পড়েন সকলেই। ওই সময় শিশুটির মা অন্য এক মহিলাকে নিয়ে জলের খোঁজ করতে যান বেশ কিছুটা দূরে। শিশুটিকে রেখে যান তাঁদের দলেরই এক মহিলার কাছে, তাঁর শিশুটির সঙ্গে। ফিরে এসে তাঁর শিশুটি বা যে মহিলার কাছে তাঁর শিশুটিকে রেখে গিয়েছিলেন, কাউকেই দেখতে পাননি মা। মরুভূমিতে শিশুটিকে খুঁজতে থাকেন তার মা।

আরও পড়ুন- এস-৪০০ কিনলে বড় ক্ষতি হবে ভারতের, হুঁশিয়ারি আমেরিকার​

আরও পড়ুন- ইমরানের সামনেই বক্তৃতায় সন্ত্রাসবাদ নিয়ে সরব মোদী​

২২ ঘণ্টা পর বুধবার মার্কিন বর্ডার প্যাট্রল পুলিশ সীমান্ত থেকে দেড় কিলোমিটার দূরে শিশুটির মৃতদেহের হদিশ পায়। কিন্তু যাঁর হেফাজতে শিশুটিকে রেখে গিয়েছিলেন তার মা, সেই মহিলার খোঁজ মেলেলি তখনও। পরে তাঁর ৮ বছরের মেয়েকে নিয়ে মার্কিন সীমান্ত পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করেন ওই মহিলা।

মার্কিন পুলিশের বক্তব্য, মেক্সিকো সীমান্তে পাচারকারীদের জন্যই এমন ঘটনা ঘটে চলেছে। প্রচুর অর্থ রোজগারের তাগিদে তারা অনুপ্রবেশকারীদের এই ভাবেই নামিয়ে দিয়ে যায় মরুভূমি লাগোয়া মার্কিন সীমান্তে। তারা মরুভূমির প্রচণ্ড গরম ও তীব্র জলাভাবের কথা মাথায় রাখে না। এ বছরের মে মাস পর্যন্ত এমন ধরনের ঘটনায় হিট স্ট্রোকের শিকার হয়ে ৫৮ জন অনুপ্রবেশকারীর মৃত্যু হয়েছে আরিজোনায়। গত বছর সংখ্যাটা ছিল ১২৭।