• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ডায়াবিটিসের ভয়? এই উপায়ে ডিম খেলে নিয়ন্ত্রণে থাকবে অসুখ

diabetes
রক্তে শর্করা রুখতে পাতে রাখুন জরুরি কাবার। ছবি: শাটারস্টক।

অতিরিক্ত মানসিক উদ্বেগ, খাওয়াদাওয়ার অনিয়ম, শারীরিক কসরতে ভাটা পড়া সঙ্গে কিছুটা বংশগত প্রবণতা, এই সব সমস্যা থেকেই শরীরে বাসা বাঁধে ডায়াবিটিস। রক্তে শর্করা বেড়ে যাওয়ায় খাবার পাত থেকে কাটছাঁট হয় অনেক কিছুই। সঙ্গে ওষুধ, নিয়মিত শরীরচর্চা, প্রয়োজনীয় পথ্য এ সবও মেনে চলতে হয় নিয়ত।

অনিয়ম হলেই রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে গিয়ে তা অসুস্থ করে তোলে। দীর্ঘ দিন ডায়াবিটিসে ভুগলে তার প্রভাবে অন্যান্য অসুখও দানা বাঁধে শরীরে। তাই রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে মেনে চলতেই হয় নানা বাধা-নিষেধ।

তবে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে ডিমের ভূমিকা নিয়ে মতামত জানালেন ইস্টার্ন ফিনল্যান্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক। তাঁদের মতে, শরীরে ডায়াবিটিস এলে তার হাত ধরে ওবেসিটি, কোলেস্টেরল নানা অসুখ দেখা দেয় অনেকের শরীরে। তাই রক্তে শর্করার মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেই অন্য ভয় থেকে কিছুটা পরিত্রাণ পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন: ঘরবাড়ি পরিষ্কারের সময় এ সব ভুলই সন্তানকে অসুস্থ করে তুলছে না তো?

ডিমে রয়েছে ডায়াবিটিস মুক্তির মন্ত্র।

এই গবেষণাপত্রের লেখক স্টেফানিয়া নোরম্যানের মতে, ‘‘শরীরে শর্করা বাড়িয়ে দেয় এমন নানা জৈবরাসায়নিক উপাদানের সঙ্গে লড়তে পারে ডিম। তাই দেখা গিয়েছে, যে সব মানুষ নানা শারীরিক কসরতের সঙ্গে প্রতি দিন সেদ্ধ ডিম খান, তাঁদের ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণে থাকে অনেকটাই।’’ 

ডায়াবিটিস রুখতে ডিমের উপর আস্থা রাখতে বলছেন পুষ্টিবিদরাও। তাঁদের মতে, সেদ্ধ ডিমেও আয়ত্তে থাকবে ডায়াবিটিস। পুষ্টিবিদ সুমেধা সিংহর মতে, সেদ্ধ ডিম তো ডায়াবিটিস রোখেই, আরও ভাল হয়, যদি কয়েকটি নিয়ম মেনে সেদ্ধ ডিম খাওয়া যায়। জানেন সে সব কী কী?

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য সম্পর্কে এই গুরুত্বপূর্ণ তথ্যগুলি জানতেন?

  • পুষ্টিবিদদের মতে, যে দিন ডিম খাবেন, তার আগের দিন রাত থেকেই কাঁচা ডিমকে ডুবিয়ে রাখুন ভিনিগারে। পরের দিন সকালে ভিনিগারে ভেজানো সেই ডিম সেদ্ধ করে খান।
  • রক্তে শর্করা নিয়ন্ত্রণের অন্যতম হাতিয়ার দারুচিনি। শরীরে ইনসুলিনের মাত্রা ঠিক রাখে দারুচিনি। তাই ভিনিগারে ডুবিয়ে রাখা ডিমকে পরের দিন সেদ্ধ করে খাওয়ার সময় ছড়িয়ে নিন দারুচিনির গুঁড়ো। ডায়াবিটিসে আক্রান্তদের খাবারেও এই দারুচিনি গুঁড়োর ব্যবহার স্বাস্থ্যসম্মত।

​(শুরু হয়েছে আমাদের নতুন বিভাগ 'HELLO DOCTOR'। এ বারের বিষয় ‘ব্রণর সমস্যা’। এ বিষয়ে আপনার প্রশ্ন পাঠান  query@abpdigital.in এই মেল আইডি তে। উত্তর দেবেন ত্বক বিশেষজ্ঞ সঞ্জয় ঘোষ।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন