Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
coronavirus

দশম দিন: আজকের যোগাভ্যাস

লকডাউনে বাড়ি থেকে বেরনোর উপায় না থাকলেও শরীরের যত্ন নেওয়াই যায়। ঘরে বসেই অভ্যাস করতে পারেন এমন কিছু আসনের হদিশ দিচ্ছি আমরা। আজ দশম দিন।কেন করবেন এই আসন?

সুপ্ত পবনমুক্তাসন। অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

সুপ্ত পবনমুক্তাসন। অলঙ্করণ: শৌভিক দেবনাথ।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ এপ্রিল ২০২০ ১১:০৯
Share: Save:

সুপ্ত পবনমুক্তাসন

‘সুপ্ত’ শব্দের অর্থ ‘ঘুমিয়ে বা শুয়ে থাকা’। ‘পবনমুক্ত’ শব্দের অর্থ ‘বায়ুকে মুক্ত করা’, অর্থাৎ শরীরে জমে থাকা বায়ু মুক্ত করা যায় এই আসনের সাহায্যে। পবনমুক্তাসন এমনই এক গুরুত্বপূর্ণ আসন যে এটি অভ্যাস করলে শারীরিক নানা প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে চাপ পড়ে।

কী ভাবে করব?

• ম্যাটের উপর টানটান হয়ে শুয়ে পড়ুন। হাত দু’পাশে রাখুন। আরামদায়ক ভাবে শুয়ে ধীরে ধীরে শ্বাসপ্রশ্বাস নিন। এটি আসন শুরুর অবস্থান। এ বারে ডান হাঁটু ভাঁজ করে পেট ও বুকের উপর এনে দু’হাত দিয়ে হাঁটুর নিচ থেকে ভাঁজ করা পা জড়িয়ে ধরুন। খেয়াল রাখতে হবে বাম পা মাটিতে টানটান অবস্থায় থাকে। ধীরে ধীরে শ্বাস টানুন। যদি হাঁটুতে ব্যথা থাকে তাহলে বেশি জোরে চাপ দেবেন না, সহ্যশক্তি অনুযায়ী ভাঁজ করবেন।

• এ বার ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে কাঁধ ও মাথা তুলে মাথা সামনের দিকে আনার চেষ্টা করুন। এর ফলে সম্পূর্ণ পেটে চাপ পড়বে। এই সময় কয়েক সেকেন্ড শ্বাস বন্ধ করে রাখার চেষ্টা করুন। এ বারে ধীরে শ্বাসপ্রশ্বাস নেওয়া শুরু করুন ও আগের অবস্থায় অর্থাৎ দু’পা সোজা করে হাত পাশে রেখে টানটান হয়ে শুয়ে পরের ধাপের জন্য প্রস্তুতি নিন। এই ভাবে ডান পায়ে ৩–৫ বার অভ্যস করতে হবে।

আরও পড়ুন: লকডাউনের জেরে ডায়ালিসিস বন্ধ করেছেন? এই ভুল ভুলেও নয়!

• একই পদ্ধতিতে বাম পা বুকের কাছে এনে অভ্যেস করুন ৩–৫ বার।

• পরের পর্যায় দুই পা হাঁটু থেকে বুকের কাছে এনে অভ্যাস করুন ৩–৫ বার।

কেন করব?

পবনমুক্তাসন পেট ও পিঠের স্বাস্থ্য রক্ষার এক অসাধারন আসন। এই আসন নিয়মিত অভ্যাস করলে অন্ত্র-সহ পেটের ভিতরে থাকা সমস্ত প্রত্যঙ্গের রক্ত চলাচল ভাল হয়। পাচনতন্ত্রে জমে থাকা বাড়তি বাতাস এই আসনের সাহায্যে বাইরে বার করে দেওয়া যায় সহজেই। এই আসন গ্যাস, অম্বল, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে উল্লেখযোগ্য ভুমিকা নেয়। নিয়মিত পবনমুক্তাসন অভ্যাস করলে কোমর, নিতম্ব-সহ মেরুদণ্ডে রক্ত চলাচল বাড়ে, মেরুদণ্ড দৃঢ় ও নমনীয় থাকে। ঋতুচক্রের সমস্যা ও বন্ধ্যাত্বের চিকিৎসার পাশাপাশি এই আসন অভ্যাস করলে দ্রুত সমস্যার হাত থেকে রেহাই মেলে।

আরও পড়ুন: সংক্রমণ এড়াতে পুরনো ইস্ত্রি, রেকর্ড, ডিভিডি প্লেয়ার নিয়েও সতর্ক হোন

সতর্কতা

হার্নিয়া,স্লিপ ডিস্ক, সায়টিকা-সহ মেরুদণ্ডের গুরুতর সমস্যা থাকলে, রক্তচাপজনিত সমস্যা বেশি থাকলে এই ব্যায়াম না করাই ভাল। গর্ভবতী থাকলেও সুপ্ত পবনমুক্তাসন করা মানা।

এ ছাড়া যাঁদের মেরুদণ্ড বা পিঠে ব্যথা আছে, তাঁরা এই আসন অভ্যাস করবেন নিজের সাধ্য অনুযায়ী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE