আবহাওয়া বদলের সময় এখন। এই রোদ তো এই বৃষ্টি। ভ্যাপসা গরমের হাত থেকে রেহাই নেই পুজোর মুখে। এমন সময়ে চারপাশে যে সব অসুখের প্রকোপ বাড়ে তার মধ্যে পেটের গণ্ডগোল, জ্বর এ সবই বেশি।

এমন সময়ে দরকার ওষুধ, চিকিৎসকের পরামর্শ। প্রয়োজন বিশেষ কিছু পথ্যেরও। চিকিৎসক সুবর্ণ গোস্বামীর মতে, এমন সময়ে পেটকে আরামে রাখতে নিয়ম মেনে খাওয়া-দাওয়া, মশলা-তেল থেকে দূরে থাকার মূল নিয়মগুলো তো বলবৎ থাকবেই, তবে এই সময় প্রতি দিন ডাবের জল খাওয়ার অভ্যাস করতে পারলে ভাল।

ডাবের জল শুধু পেটের সমস্যাই মেটায় এমন নয়, এর আরও অনেক শারীরিক গুণ আছে। জানেন কী সে সব কী?

আরও পড়ুন

কিচেন গার্ডেন করার শখ আছে? তা হলে এ ভাবেই শুরু করুন সহজে

মেদ নিয়ে চিন্তা? এ ভাবে মেথি খেলেই মিলবে সমাধান

  • ডাবের জল শরীরে জলের ভারসাম্য রাখে। অনেক সময়ই অতিরিক্ত তেল-মশলা, ঠান্ডা পানীয় এ সব আমাদের শরীরে জলের চাহিদা বাড়ায়। তাই ক্ষতিকর খাবারের বদলে ডায়েটে রাখুন ডাবের জল।
  • ডাবের জলে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম, সোডিয়াম রয়েছে। তাই শরীরে এই সব খনিজের অভাব রুখে দিতে পারে ডাবের জল। প্রতি দিন এই ডাবের জল ডায়েটে রাখলে শরীরে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতাও বাড়ে। পটাশিয়াম থাকায় ডায়ারিয়া রুখতে এই জল খুব প্রয়োজনীয়।

  • ডাবের জল প্রাকৃতিক ভাবেই স্যালাইন ওয়াটারের কাজ করে। ক্লান্তি কমাতে, শরীরকে ঠান্ডা রাখতে খুব উপকারী এই জল। সমুদ্র উপকূলে বা রোদে যাঁরা কাজ করেন তাঁরা দিনে দু’-তিনটি ডাবও খেতে পারেন। 
  • ডাবের জলে বেশ কিছু উপকারী উৎসেচক থাকায় তা হজম অত্যন্ত সাহায্য করে। অনেকেরই ভারী কিছু খাওয়ার পর ঠান্ডা পানীয় খাওয়ার অভ্যাস আছে। সে অভ্যাসে রাশ টেনে ডাবের জল খান ঠান্ডা পানীয়র পরিবর্তে।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ