Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Covid-19 Recovery: কোভিডের পর স্বাভাবিক জীবনযাপনে ফেরার গাইড।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ মে ২০২১ ১০:১৩
দেহের নানা অঙ্গ স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজন কিছু বিশেষ ব্যায়ামের।

দেহের নানা অঙ্গ স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজন কিছু বিশেষ ব্যায়ামের।
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

কোভিড হওয়ার পর তার উপসর্গ মিলিয়ে গেলেও রেশ থেকে যায় বহুদিন। ক্লান্তি, শ্বাসকষ্ট, রোজকার কাজ করতে গেলেই হাঁপিয়ে যাওয়া বা ঘরের মধ্যে দু’পা হাঁটতেই ক্লান্ত লাগা চলতে থাকে নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়ার বহুদিন পরও। তবে শুরু থেকে যদি নিয়মিত শরীরচর্চা করেন, তা হলে সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে আগের মতো জীবনযাপন করতে পারবেন। শুরু করতে হবে ধীরে ধীরে, এবং ক্রমশ সেটা বাড়াতে হবে। শরীরে যাতে বেশি চাপ না পরে সেটা খেয়াল রাখতে হবে। আনন্দবাজার ডিজিটালের সিরিজে আপনাদের জন্য রইল তেমনই একটা গাইডলাইন।

শরীরের স্বাভাবিক গতি ফিরিয়ে আনতে শরীরচর্চার প্রয়োজন। যেগুলি মাথায় রাখতে হবে।

১। ফুসফুস ও হৃদযন্ত্র আরও শক্ত করা

Advertisement

২। শরীরের ভারসাম্য বজায় রাখা। প্রত্যেকটা অংশ একসঙ্গে কাজ করছে, সেটা নিশ্চিত করা

৩। মাংসপেশি এবং হাড়ের জয়েন্ট ঠিক রাখা

৪। মস্তিষ্ক এবং চিন্তাভাবনা পরিষ্কার রাখা

এগুলো সবই করতে হবে ধীরে ধীরে। এবং মোট তিনটি পর্যায় করা হবে। শুরুর পর্যা, শরীর গড়ে তোলার পর্যা এবং স্বাস্থ্য বজায় রাখার পর্যা। দ্বিতীয় পর্যা হল শরীর গড়ার পর্যা। কোভিডের কারণে শরীরের যে শক্তি কমে গিয়েছিল, সেটা ধীরে ধীরে ফিরে পেতে সাহায্য করবে এই ব্যায়ামগুলো।

শরীরে বল আনা (দিন: ১৮)

সময়: ১ মিনিট

ব্রিদিং শোল্ডার প্রেস

১। শুরু করুন খালি হাতেই। তবে সেটা যদি খুব সহজ মনে হয় তা হলে ৫০০ গ্রামের ডাম্বল বা ৫০০ মিলিলিটারের দু’টো জলের বোতল নিন।

২। কোনও খাটের মাথা বা চেয়ারে হেলান দিয়ে বসুন।

৩। বোতল ধরতে পারলে সেগুলো নিয়ে ঘাড়ের কাছে ধরুন।

৪। নিঃশ্বাস নিয়ে পেটের অবধি হাওয়া নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন।

৫। ঠোঁটের ফাক দিয়ে শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে দু’হাতের জলের বোতলগুলো উপর দিকে সোজাসুজি তুলে ধরার চেষ্টা করুন।

৬। নাক দিয়ে নিঃশ্বাস নিতে নিতে হাত নামিয়ে নিন।

৭। এভাবে নিঃশ্বাসের সঙ্গে হাত নামানো-ওঠানো মিলিয়ে নিন।

৮। ১ মিনিট এভাবেই ব্যায়াম চালিয়ে যান।


আগামী দিনের গাইডলাইনের জন্য চোখ রাখুন পরের পর্বে

তথ্যসূত্র: জন্‌স হপকিন্‌স মেডিসিন

আরও পড়ুন

Advertisement