• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

অনিয়মে শরীরে ঢোকা ক্যালোরি আটকে মেদ রুখতে ভরসা রাখুন এ সবে

calorie
ক্যালোরি মেপেই রুখে দিন মেদ। ছবি: শাটারস্টক।

Advertisement

সারা শীত জুড়েই পার্টি, পিকনিক, নানা উৎসবে ভূরিভোজের চোটে ওজন যেমন বেড়েছে, তেমনই জানান দিচ্ছে পেটের মেদও। ডায়েট, হাঁটাহাঁটি, টুকটাক ক্রাঞ্চ-প্লাঙ্ক মিশিয়ে যে চেষ্টাটা শুরু করেছিলেন তা প্রায় বিশ বাঁও জলে। এ দিকে পর পর নানা পার্টি, নিমন্ত্রণের চোটে ডায়েট নতুন করে শুরু করাও যাচ্ছে না। তবে ডায়েট না শুরু করলেও, কিছু উপায়ে জমে যাওয়া ক্যালোরিকে শায়েস্তা করতে পারেন। এতে বাড়তি ওজন আর নতুন করে চেপে বসবে না।

আজকাল ক্যালোরি মাপার জন্য নানা রকম অ্যাপ রয়েছে। ক্যালরি কাউন্টিং অ্যাপ্লিকেশনও ডাউনলোড করতে পারেন বিনামূল্যে। তবে এ সবের মধ্যেও জেনে নিতে হবে ক্যালোরিকে ফাঁকি দেওয়ার উপায়। সারা দিনের সব কাজই করবেন, কেবল একটু এ দিক ও দিক করে। সেই সব কৌশলের হাত ধরেই ক্যালোরি-মিটার থাকবে ডাউন।

কোন কোন উপায়ে এমনটা হওয়া সম্ভব? রোজের অফিস, বাড়ির নানা কাজ, হাজারো পার্টি, এ সবের মধ্যেই ক্যালোরিকে আটকাতে ভরসা রাখুন কিছু উপায়ে।

আরও পড়ুন: ভাইরাল ইনফেকশনকে দূরে রাখুন এই উপায়ে

  • প্রথমেই রোজের খাদ্যতালিকা থেকে বাদ দিয়ে দিন চিনি ও কোল্ড ড্রিঙ্ক। এক চামচ চিনিতে থাকে ১৬ ক্যালোরি। ৫০০ মিলি কোল্ড ড্রিঙ্কে কমবেশি ২০০ ক্যালরি থাকে।

  • আস্থা রাখুন লেবু-জল, ঘোল, মধু দিয়ে বানানো যে কোনও পানীয়তে।

  • অফিসে ফোনগুলো সারুন পায়চারি করতে করতে। দুটো কাজের মাঝে খানিক ক্ষণ নীচে গিয়ে হেঁটে আসুন।

  • পার্টি বা নিমন্ত্রণের দিন বাদ দিয়ে পাত থেকে তেল-ঝাল বাদ দিন। খাবারের প্লেটটা ছোট আকারের বাছুন। এতে কম খাবার ধরায় অতিরিক্ত খাবার খাওয়ার ভয় কমবে।

  • কোনও দিন কোনও স্ন্যাক্স খেতে হলেও বাদ দিন মেয়োনিজ বা সস। ১ টেব‌ল চামচ মেয়োনিজ প্রায় ৫৫-৫৭ ক্যালোরি শরীরে প্রবেশ করায়।

আরও পড়ুন: বয়স বাড়লেও পিছু ছাড়ছে না ব্রণর সমস্যা? কারণ কী জানেন?

  • প্রিয় কোনও খাবার খাওয়ার আগে বা খুব খিদে পেলে খেতে বসার আগে এক গ্লাস জল খেয়ে নিন। তাতে পেট ভরা থাকবে কিছুটা, খাবার নেওয়ার পরিমাণও কমবে।

  • রেস্তরাঁয় যেতে হলে গ্রিলড খাবার বা বার্বি কিউ বাছুন। সঙ্গে একটা হজম সহায়ক স্যুপ নিন। এতে বাইরে খেলেও স্বাস্থ্য ও শরীরে কিছুটা যত্ন পৌঁছে দেওয়া যবে।

  • প্যাকেটজাত খাবার, ড্রিঙ্ক এ সব এড়িয়ে চলুন। এগুলোয় প্রচুর চিনি ও প্রিজারভেটিভ যোগ করা থাকে।

  • সুগার ফ্রি একেবারে নয়। এতে কৃত্রিম চিনি মেশানো থাকে, যার প্রভাবে চিনির চেয়ে বেশি ক্ষতি হয়। তার বদলে গুড়ের বাতাসা, মধু ব্যবহার করুন।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন