Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২
reading

Benefits of Reading: ঘুমোতে যাওয়ার আগে মোবাইলে খুটখাট? বন্ধ করে চোখ রাখুন বইয়ের পাতায়

সামাজিক মাধ্যমের রমরমা তখন ছিল না। কাজেই রাতের বেলা বিছানায় বই নিয়ে বসার একটা ভাল অভ্যাস গড়ে উঠেছিল।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ অক্টোবর ২০২১ ১৫:৪১
Share: Save:

সামাজিক মাধ্যমের রমরমা তখনও এতটা ছিল না। মোবাইলে মেসেজ চালাচালি চললেও, মন পড়ে থাকত বইয়ের পাতায়। বিশেষ করে রাতের বেলা বই না পড়লে যেন ঠিক মতো ঘুমটাই হত না। এই অভ্যাসে ছেদ টেনেছে প্রযুক্তি! রাত জেগে অকারণ স্ক্রোলিং, সামাজিক মাধ্যমে চ্যাট করা আমাদের রাতের বেলা বই পড়ার নেশা থেকে অনেকটাই দূরে সরিয়ে দিয়েছে। কিন্তু জানেন কি ঘুমোতে যাওয়ার আগে বিছানায় বই পড়া কতটা উপকারী?

Advertisement

কেন ঘুমোতে যাওয়ার আগে বই পড়া উচিত?

১) রাতে বই পড়লে ভাল ঘুম আসে। এক ধরনের গল্প বা লেখা নিবিষ্ট হয়ে পড়তে পড়তে আমরা অন্যান্য চিন্তাভাবনা থেকে দূরে সরে যাই। ফলে সহজেই ঘুম চলে আসে।

২) সারা দিনের কাজের চাপ, পরের দিনের কোনও উদ্বেগ আর আপনার মাথায় থাবা বসাতেই পারবে না, যদি দিনটা শেষ করেন বই পড়ে। কারণ গবেষণা বলছে, রোজ রাতে শুতে যাওয়ার আগে বই পড়লে চাপ-উদ্বেগ এড়ানো সম্ভব।

Advertisement
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

৩) বাঁধাধরা রুটিন মেনে চলতে চলতে এক ধরনের গতানুগতিকতা চলে আসে। ফলে মানুষ তার স্বাভাবিক সৃজনশীলতা হারিয়ে ফেলে। সমীক্ষা বলছে, যাঁরা রোজ রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে বই পড়েন, তাঁরা অন্যান্যদের তুলনায় অনেক বেশি সৃজনশীল হন।

৪) কোনও কাজেই তেমন মনঃসংযোগ রাখতে পারেন না? এর সমাধানও রয়েছে বইয়ের হাতেই। রাত জেগে সামাজিক মাধ্যমে স্ক্রোল করা বন্ধ করে কিছুটা সময় চোখ রাখুন বইয়ের পাতায়, মনোযোগ ফিরবেই।

৫) বই ভাল রাখে মনও। রোজ রাতে নিয়মিত বই পড়লে এক ধরনের উৎফুল্লতা তৈরি হবে। যে কোনও বিষয় অনেক গভীর ভাবে অনুভব করার ক্ষমতাও জন্মায় বই পড়লে। মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে হলে বইয়ের হাত ধরুন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.