×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৮ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

শরীর ও ত্বক সুস্থ রাখতে এই গরমে লিচু খান

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ০১ মে ২০১৯ ১৪:২৩
গরমে লিচুতে ভরসা রাখুন। ছবি: পিক্সাবে।

গরমে লিচুতে ভরসা রাখুন। ছবি: পিক্সাবে।

দমবন্ধ করা গরম, প্যাচপেচে ঘাম হলেও গ্রীষ্ম কিন্তু ফলের জন্য সেরা। কাঠফাটা গরমে সুস্বাদু ফলাহার মশলাদার মাছ-মাংসকেও হার মানায়। গরমের ফলের মধ্যে অন্যতম হল লিচু। তবে শুধু স্বাদেই নয়। গুণেও ভরপুর এই ফল। বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা থেকে রূপচর্চা, লিচুতেই রয়েছে সমাধান।

শুধু ফল হিসাবেই নয়, শরবত থেকে নানা রান্নার পদে স্বাদ বাড়ানোর অনুঘটক, সবেতেই লিচুর ভূমিকা রয়েছে। নানা রোগ প্রতিরোধে, রূপচর্চায় লিচুর এমন কিছু ব্যবহার আছে, যা জানলে এই ফলকে অচিরেই ভালবেসে ফেলবেন।

কখনও পেটে খেয়ে আবার কখনও বা অন্য ভাবে ব্যবহার করেও লিচুর উপকার নানা পেতে পারেন। জানেন লিচুর কী কী গুণ রয়েছে?

Advertisement



স্বাদে,গুণে ভরপুর লিচু। ছবি: পিক্সাবে।

আরও পড়ুন: বলিরেখা, বয়সের ছাপ এড়াতে খান ৯ পানীয়​

ত্বকের ট্যান দূর করতে ৩ থেকে ৪টি লিচু ছাড়িয়ে চটকে নিন। তার পর তাতে একটি ভিটামিন ই ক্যাপসুল সলিউশন মিশিয়ে নিন। এবার এই মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে রেখে ৩০ মিনিট পরে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। হার্টের পক্ষে খুবই উপকারী লিচু। এতে রয়েছে অলিগোনল, যা নাইট্রিক অক্সাইড তৈরি করতে সাহায্য করে। এই নাইট্রিক অক্সাইড আবার রক্ত চলাচলে সাহায্য করে।চুল গজাতে সাহায্য করে লিচু। ৭ থেকে ৮টি লিচুর রস নিন। তাতে ২ টেবিলচামচ অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণটি স্ক্যাল্পে লাগান। এক ঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন। তার পরে হালকা শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। লিচুর মধ্যে রয়েছে ফাইটোকেমিক্যালস, যা অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট হিসেবে কাজ করে এবং চোখে ছানি পড়া আটকায়। ত্বকের কালো দাগ দূর করতেও কাজ দেয় লিচু। ৪ থেকে ৫টি লিচু ছাড়িয়ে চটকে মেখে নিন। তার পরে তুলো ওই মিশ্রণে ভিজিয়ে কালো দাগগুলিতে লাগান। ১৫ মিনিট পরে পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকে বয়সের ছাপ কমাতে খুবই কাজ দেয় লিচুর প্যাক। ৪ থেকে ৫টি লিচু ছাড়িয়ে কলার এক-চতুর্থাংশ দিয়ে মেখে প্যাক বানিয়ে নিন। হাল্কা করে মাসাজ করে ১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

আরও পড়ুন: হাঁপানির জেরে নাজেহাল! রইল উপশমের দাওয়াই​

ক্যানসার প্রতিরোধক রয়েছে লিচুতে। তাই নিয়মিত খাওয়া উচিত মরসুমি ফল। লিচুকে ক্যালোরি খুব কম। তাই ওজন বাড়ার আশঙ্কা নেই। লিচুর অলিগোনল ভাইরাসকে বাড়তে দেয় না। তাই নিয়মিত লিচু খেলে শরীরে জ্বর বা ইনফেকশন থেকে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে। নিয়মিত এই ফল খেলে হজমশক্তি ভাল হয়।

Advertisement