আপনি কি সঠিক ভাবে মলত্যাগ করেন? ভাবছেন এ আবার কী প্রশ্ন! মলত্যাগ করারও নিয়ম কানুন রয়েছে নাকি? আছে বৈকি। চিকিত্সকরা জানাচ্ছেন মলত্যাগের সময় ভুল ভাবে বসার কারণে অধিকাংশ কলোরেক্টাল সমস্যা, পেটের সমস্যা ও হজম সমস্যা দেখা দেয়।

সাহেবি কায়দা শেখার আগে আমাদের দেশে উবু হয়ে বসে মলত্যাগেরই রেওয়াজ ছিল। দু’শো বছরের ইংরেজ শাসনের পর স্বাধীন ভারত সাহেবি কায়দাই রপ্ত করে ফেলেছে। তবে চিকিত্সকদের দাবি, পাশ্চাত্য কায়দার থেকে অনেক বেশি স্বাস্থ্যকর ভারতীয় কায়দায় মলত্যাগ। এখন শহুরে জীবনের অধিকাংশ বাড়িতেই রয়েছে কমোড। ফলে ছোট থেকেই শিশুদের সে ভাবেই টয়লেট ট্রেনিং দেওয়া হয়। যার ফলে পরে কোলেরেক্টাল সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে।

৯০ ডিগ্রি

কমোডে বসার সময় শরীর ৯০ ডিগ্রি কোণ তৈরি করে। পিঠ সোজা, পায়ের পাতা মাটিতে। এ ভাবে হাঁটু ও নিতম্ব ৯০ ডিগ্রি কোণে থাকার ফলে মলদ্বার সরু হয়ে আসে। ফলে বাওয়েল মুভমেন্ট বাধাপ্রাপ্ত হয়। কোলনে চাপ পড়ার ফলে দীর্ঘকালীন সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

কী কী সমস্যা হতে পারে-

কোষ্ঠকাঠিন্য

হেমোরয়েড

ইরিটেবল বাওয়েল সিনড্রোম

হার্নিয়া

৩৫ ডিগ্রি

প্রাচ্যের দেশগুলোতে মলত্যাগের সময় শরীর ৩৫ ডিগ্রি কোণ তৈরি করে। এর ফলে শারীরিক সমস্যা অনেক কম হয়। এই সময় শরীর কিছুটা সামনের দিকে ঝুঁকে থাকলে সবচেয়ে ভাল ফল পাওয়া যাবে। অর্থাত্, হাঁটু বুকের যত কাছাকাছি থাকবে স্বাস্থ্যের পক্ষে তা তত উপযোগী।

কী ভাবে বসবেন

অধিকাংশ বাড়িতেই এখন শুধু কমোড রয়েছে। চিকিত্সকরা জানাচ্ছেন ভাল ফল পেতে মলত্যাগের সময় মাটিতে পা না রেখে টুলে পা রাখুন। স্বাস্থ্যা ভাল থাকবে।