Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
IVF

Work Pressure: কাজের চাপে সময় নেই ঘনিষ্ঠতার, সমস্যা হচ্ছে সন্তানধারণেও, বলছে সমীক্ষা

অতিরিক্ত কাজের চাপে নাকি যৌন মিলনে আগ্রহ হারাচ্ছেন দম্পতিরা। সন্তানধারণে আগ্রহী অনেককেই শেষ পর্যন্ত শরণাপন্ন হতে হচ্ছে আইভিএফ পর্দ্ধতির।

কাজের চাপের প্রভাবে সম্পর্কের টানাপড়েন?

কাজের চাপের প্রভাবে সম্পর্কের টানাপড়েন? ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১১ মে ২০২২ ০৭:৪০
Share: Save:

কর্মক্ষেত্রে বাড়তে থাকা চাপের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে মানুষের শয়নকক্ষেও। অতিরিক্ত কাজের চাপে নাকি যৌন মিলনে আগ্রহ হারাচ্ছেন দম্পতিরা। এমনকি কিছু কিছু ক্ষেত্রে সমস্যা এতই গভীর হয়ে যাচ্ছে যে, সন্তানধারণে আগ্রহী অনেককেই শেষ পর্যন্ত শরণাপন্ন হতে হচ্ছে আইভিএফ পদ্ধতির। অন্তত এমনটাই দাবি করা হল এক আন্তর্জাতিক সমীক্ষক সংস্থার একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষায়।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

ব্রিটিশ নাগরিকদের উপর করা সমীক্ষাটি বলছে, ২৫ থেকে ৩০ বছর বয়সি দম্পতিরা সবচেয়ে বেশি আগ্রহী নিয়মিত যৌন মিলনে। কিন্তু বয়স তিরিশের কোঠা পেরোলে অনেকটাই কমে যাচ্ছে এই প্রবণতা। ৩৫ থেকে ৩৯ বছর বয়সি দম্পতির ক্ষেত্রে প্রতি সপ্তাহে যৌন মিলনের সংখ্যা সর্বনিম্ন বলেও দাবি সমীক্ষকদের।

বিষয়টির কারণ হিসেবে উঠে এসেছে কর্মক্ষেত্রে অতিরিক্ত চাপের তত্ত্ব। গবেষকরা বলছেন, অতিরিক্ত কাজের চাপে তিরিশ বছর আগের তুলনায় এখন দম্পতিদের যৌন মিলনের হার প্রায় অর্ধেক হয়ে গিয়েছে। প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগে ল্যাঙ্কাস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণা জানিয়েছিল, কাজ সেরে বাড়ি ফেরার পর অধিকাংশ দম্পতিই ব্যস্ত থাকছেন ল্যাপটপ কিংবা মোবাইলে। ফলে কমছে একসঙ্গে কাটানো সময়ের পরিমাণ। তবে এই যুক্তি মানতে নারাজ সমাজের আরেকটি অংশ। তাঁদের দাবি, সম্পর্ক নিয়ে তরুণ প্রজন্মের দৃষ্টিভঙ্গির বদলই আসলে এই ঘটনার কারণ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE