×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

সম্পর্ক ভাঙবে কি? এ সব লক্ষণ দেখলে সাবধান হোন এখনই

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৭ এপ্রিল ২০১৯ ১৪:৪৬
সম্পর্ক ভেঙে যাবে কি না, তার আভাস মেলে বেশ কিছু ব্যবহারে। ছবি: শাটারস্টক।

সম্পর্ক ভেঙে যাবে কি না, তার আভাস মেলে বেশ কিছু ব্যবহারে। ছবি: শাটারস্টক।

প্রেমের জোয়ারে ভাসার সময়ে মনে হয় যেন এই প্রেম চিরন্তন। পৃথিবী ওলটপালট হয়ে গেলেও প্রেমে চিড় ধরবে না। তবে শুধুই আসার সময়েই নয়, অনেক প্রেম যাওয়ার সময়েও বেশ ঝড়-তুফানের সাক্ষী হয়। আবার নিঃশব্দেও ভেঙে যায় অনেক খেলাঘর বাঁধার স্বপ্ন।

তবে প্রেমে পড়া যেমন স্বাভাবিক, প্রেম ভেঙে যাওয়াও অস্বাভাবিক নয়। সমস্যাটা হল, প্রেমে পড়ার সময় দু’জনের সমান অংশ থাকে। প্রেম ভাঙার সময় সে নিয়ম সব সময় খাটে না। এক জনের কারণেও প্রেম মুখ থুবড়ে পড়তে পারে, আবার দু’জন মিলে সিদ্ধান্ত নিয়েও সম্পর্ক থেকে সরে আসেন অনেকেই।

তবে প্রেমে পড়ার আভাস আগে থেকে না পাওয়া গেলেও, সম্পর্ক ভাঙার বেলায় কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই আগে থেকে আন্দাজ করা যায়। প্রেম হঠাৎ করে দরজায় টোকা মারলেও, ভাঙন কিন্তু আস্তে আস্তে ধরে। অভিযোগ আর অভিমানের পাহাড় জমতে জমতে শেষে ধৈর্যের বাধ ভাঙে। তাই আগে থেকেই সাবধান হোন। জেনে নিন কোন লক্ষণগুলি বলে দিতে পারে সম্পর্ক ভাঙতে পারে!

Advertisement

আরও পড়ুন: এই সব খাবারও মাইক্রোওয়েভে গরম করেন? বিপদ ডেকে আনছেন কিন্তু

বন্ধুত্বে বাধা: সব সম্পর্কেই বন্ধুত্ব থাকা প্রয়োজন। বন্ধুত্বহীন কোনও সম্পর্কই দীর্ঘস্থায়ী হয় না। তাই সম্পর্কে বন্ধুত্ব নষ্ট হয়ে গেলে তার মেয়াদ যে ফুরনোর পথে তা বলে দেওয়া যায়। বন্ধুত্বে অনেক কিছুই বলা যায়, ভাগ করে নেওয়া যায়। প্রেমের সম্পর্কেও ঠিক তেমনই কমফর্ট জোন থাকা উচিত।



সম্পর্কে অবদমন নষ্ট করে দিতে পারে প্রেমের বীজ।

অবদমন: প্রত্যেক সম্পর্কে এক জন একটু নমনীয় হন। কিন্তু সেই নমনীয় ব্যক্তির উপরে যদি অন্য জন প্রতিনিয়ত অবদমন চালাতে থাকে তা হলে মুশকিল। প্রতিটি বিষয়ে যদি এক জনকে আর এক জনের কাছে প্রমাণ দর্শাতে হয়, তা হলেও মুশকিল। এমন হলে সাবধান হোন।

শ্রোতা নয়: সঙ্গীর সঙ্গেই সবটা ভাগ করে নেওয়া যায়। তাই পরস্পরের কথা শোনার অবকাশ থাকা প্রয়োজন। ব্যস্ততা কাজ প্রত্যেকের জীবনে থাকে। কিন্তু এক জন থাকা দরকার, যাঁকে প্রয়োজনে পাশে পাওয়া যায়। সেই জায়গা না থাকলে সম্পর্কের ভিতও নড়বড়ে হয়ে যেতে থাকে। শূন্যস্থান তৈরি হয়। মনে রাখবেন এই ভাবেই বাইরের লোক শূন্যস্থানে ঢুকে পড়ার সুযোগ পায়।

আরও পড়ুন: প্রতি দিনের এই ভুলগুলিই কিন্তু আপনাকে ঠেলে দিচ্ছে স্ট্রোকের দিকে

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

শ্রদ্ধায় ঘাটতি: সম্পর্কে পরস্পরকে শ্রদ্ধার জায়গাটা খুব দরকার। বন্ধুর মতো খুনসুটি করলেও দিনের শেষে পারস্পরিক শ্রদ্ধাটা বজায় রাখা খুব দরকার। সম্পর্কে ভুল বোঝাবুঝি হয়। কিন্তু কটু কথা, অপমান এগুলো দিনের পর দিন চলতেই থাকলে একসঙ্গে থাকা যায় না।

স্পেসের অভাব: সম্পর্কে স্পেস থাকারও দরকার। প্রেমে রয়েছেন বলে স্বাধীন ভাবে নিজের মতো সময় কাটানো যাবে না, এমন কোথাও লেখা নেই। দু’জনেরই নিজের জগতে নিজেকে সময় দেওয়া প্রয়োজন। পরস্পরের মধ্যে যদি সেই স্পেস দেওয়া নিয়ে অনবরত সমস্যা হতে থাকে তা হলে সাবধান হোন। বুঝূবেন সম্পর্ক ভাঙার দিন এগিয়ে আসছে।

বিশ্বাসহীনতা: প্রেমের অন্যতম ভিত হল বিশ্বাস। তাই সম্পর্কের মধ্যে অবিশ্বাস, সন্দেহ, প্রতারণা ইত্যাদি ঢুকে পড়লে সেই সম্পর্ককে বাঁচানো কঠিন।

Advertisement