• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পিএফ-এর টাকা না পেয়ে বসের ফোন নম্বর ডেটিং সাইটে ছড়িয়ে দিলেন কর্মী

GFX
গ্রাফিক- তিয়াসা দাস।

প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা দাবি করেছিলেন কর্মী। কিন্তু অফিসের বস সেই আবেদন মঞ্জুর করেননি। সে জন্য বসের ফোন নম্বর বিভিন্ন অনলাইন ডেটিং সাইটে ছড়িয়ে দিয়েছেন ওই কর্মী। সেই সঙ্গে বসের পরিবারের লোকেদের জন্য অর্ডার করেছেন সেক্স টয়। অদ্ভুত এই ঘটনা সম্প্রতি ঘটেছে বেঙ্গালুরুর একটি সংস্থাতে।  

কালমানে ট্রেডিং প্রাইভেট লিমিটেড সংস্থার ডিরেক্টর অবিনাশ প্রভু। তিনি সম্প্রতি সেন্ট্রাল সিইএন ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁর সংস্থার কর্মী হরিপ্রসাদ যোশীর বিরুদ্ধে।

পুলিশে করা অভিযোগে প্রভু জানিয়ছেন, যোশী বেশ কিছু দিন ধরে তাঁর কাছে প্রভিডেন্ট ফান্ডের টাকা দাবি করছিলেন। এর উত্তরে প্রভু জানিয়েছিলেন, অতিমারির কারণে ব্যবসা বন্ধ রয়েছে। তার উপর আগের বিজনেস হেড সব কাগজপত্র এখনও জমা দেননি। তাই কোভিডের সমস্যা মিটলে পিএফ-এর টাকা দিয়ে দেওয়া হবে। তার পরও যোশী প্রভুর সঙ্গে যোগাযোগ করে টাকার জন্য চাপ দিতেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, টাকার বিষয়টি নিয়ে প্রভু ও যোশীর মধ্যে সপ্তাহ দু’য়েক আগে কথা কাটাকাটিও হয়। তার পরই এই কাণ্ড ঘটান যোশী। পুলিশে  করা অভিযোগে প্রভু বলেছেন, ‘‘আমাকে ও আমার স্ত্রী-পুত্রকে কুরুচিকর ভাষায় মেল পাঠায় যোশী। আমার ও আমার স্ত্রীর মোবাইল নম্বর বিভিন্ন অনলাইন ডেটিং সাইটে ছড়িয়ে দেয়। আমার ও আমার স্ত্রীর নামে সেক্স টয় অর্ডার দিয়েছে সে।’’ তবে কতদিন ধরে যোশী প্রভুর সংস্থায় কাজ করছেন, সে ব্যাপারে কিছু জানা যায়নি।

আরও পড়ুন: ‘খুন’ হওয়া তরুণী প্রেমিকের বাড়িতে, ১৮ মাস ধরে জেল খাটছেন বাবা-দাদা!

এই অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর তদন্তে নামে পুলিশ। আইটি আইন ও ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১৯ ও ৫০৯ ধারায় মামলা দায়ের করা হয়। যোশীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। যে নম্বর থেকে প্রভুকে ফোন করতেন যোশী, সেই নম্বরের বিস্তারিত কললিস্ট খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের এক অফিসার।

আরও পড়ুন: বিমানবন্দর নিয়ে আগেও সতর্ক করা হয়েছিল, উদ্ধার হল ব্ল্যাক বক্স

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন